অর্থনীতি

পোশাকশিল্পের জন্য মজুরি বোর্ড গঠনের অনুরোধ

পোশাকশিল্পের শ্রমিকদের জন্য নতুন মজুরি বোর্ড গঠন করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ক্রেতাদের জোট অ্যাকর্ড অন ফায়ার অ্যান্ড বিল্ডিং সেফটি ইন বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চিঠি দিয়ে এই আহ্বান জানায় জোটটি। প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া চিঠিতে অ্যাকর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মজুরি বোর্ড গঠনের পাশাপাশি যদি নিয়মিত পর্যালোচনার একটি ব্যবস্থা করা হয়, তবে সেটি পোশাক খাতের স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে সহায়তা করবে। একই সঙ্গে তা সাম্প্রতিক সময়ে পোশাক খাতে যে অনভিপ্রেত ও অপ্রত্যাশিত ঘটনা ঘটেছে, তা-ও এড়ানো যাবে। এ ধরনের পরিস্থিতি শিল্পের ভাবমূর্তি ও আস্থা ক্ষুণ্ন করে, যা সরকারসহ সবাই কঠোর পরিশ্রম করে অর্জন করেছে। ১২ জানুয়ারি অ্যাকর্ড প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এই চিঠি দিয়েছে। অ্যাকর্ডের পক্ষে চিঠিতে স্বাক্ষর করেন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক রব ওয়েজ। বৃহস্পতিবার চিঠির অনুলিপি নিজেদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেছে অ্যাকর্ড। সেই চিঠির অনুলিপি শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক, বিজিএমইএর সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান, বিকেএমইএর সভাপতি এ কে এম সেলিম ওসমানকে দিয়েছে সংস্থাটি। মজুরি বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন দাবিতে গত মাসে আশুলিয়ায় পোশা৬কশ্রমিকেরা কর্মবিরতি পালন করেন। আন্দোলন ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়লে সেখানকার ৫৯ কারখানা চার দিন বন্ধ থাকে। এ সময় আন্দোলন করার অজুহাতে অনেক শ্রমিককে ছাঁটাই করে কয়েকটি কারখানার কর্তৃপক্ষ। কয়েক হাজার শ্রমিকের বিরুদ্ধে নয়টি মামলা হয়। পুলিশের হাতে বেশ কয়েকজন শ্রমিকনেতা গ্রেপ্তার হন। এই প্রেক্ষাপটেই অ্যাকর্ড প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছে। ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল রানা প্লাজা ধসের পর দেশের পোশাক খাতের কর্মপরিবেশ উন্নয়নে ইউরোপীয় ২২০ ব্র্যান্ড ও খুচরা বিক্রেতা এবং দেশি-বিদেশি শ্রমিক সংগঠনের চুক্তির মাধ্যমে অ্যাকর্ড গঠিত হয়। পরিদর্শনের মাধ্যমে পোশাক কারখানার অগ্নি, ভবন ও বৈদ্যুতিক ত্রুটি চিহ্নিত করে অ্যাকর্ড। তারপর সংস্থার তত্ত্বাবধানে ত্রুটি সংশোধন করে কারখানাগুলো। অ্যাকর্ডের পাশাপাশি উত্তর আমেরিকার ক্রেতাদের জোট অ্যালায়েন্স একইভাবে কাজ করছে। চিঠিতে অ্যাকর্ড বলেছে, গত তিন বছরের বেশি সময়ে অ্যাকর্ডের অধীনে দেশের পোশাকশিল্প নিরাপত্তা ইস্যুতে অভূতপূর্ব উন্নতি করেছে। প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া চিঠিতে গত মাসের আশুলিয়ার ঘটনায় গভীরভাবে উদ্বেগ জানিয়ে অ্যাকর্ড বলেছে, সম্প্রতি যাঁদের আটক ও ছাঁটাই করা হয়েছে, তাঁরা শ্রমিক অধিকারে সোচ্চার। বিশ্বস্ত তথ্য অনুযায়ী, গত মাসে কমপক্ষে ১৪ জন আটক বা গ্রেপ্তার হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ১১ জন পুলিশি হেফাজতে আছেন। দু-তিনজনকে মারধর করা হয়েছে। প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক ছাঁটাইয়ের শিকার হয়েছেন। এ ছাড়া আশুলিয়ার শ্রমিক-অসন্তোষে সাত শতাধিক শ্রমিকের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ আছে এবং তাঁরা সম্ভাব্য গ্রেপ্তারের হুমকির মধ্যে আছেন। দেশের শ্রম ও আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) কনভেনশন অনুযায়ী দেশের শ্রমিকদের অধিকার সুরক্ষায় শিগগিরই ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছে অ্যাকর্ড। একই সঙ্গে শ্রমিকদের যদি অন্যায়ভাবে আটক ও ছাঁটাই এবং মৌলিক অধিকার ক্ষুণ্ন হয়, সে ক্ষেত্রে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছে সংস্থাটি। অ্যাকর্ডের পাশাপাশি সম্প্রতি বিশ্বখ্যাত এইচঅ্যান্ডএমসহ ২০টির বেশি ব্র্যান্ড ও ক্রেতাপ্রতিষ্ঠান পোশাকশিল্পের মজুরি পর্যালোচনার জন্য অনুরোধ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সম্মিলিতভাবে একটি চিঠি দিয়েছে। এতে আশুলিয়ার সাম্প্রতিক শ্রমিক-অসন্তোষের বিষয়টি উল্লেখ করে শ্রমিকদের অধিকার সংরক্ষণের অনুরোধ করা হয়। পোশাক খাতে সর্বশেষ ২০১৩ সালের ডিসেম্বর মজুরি বাড়ে। সে সময় খাতটির ন্যূনতম মজুরি ৩ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫ হাজার ৩০০ টাকা করা হয়। শ্রম আইন অনুযায়ী, মজুরি ঘোষণার এক বছর পর ও তিন বছরের মধ্যে মজুরি পুনর্নির্ধারণের সুযোগ আছে। পাঁচ বছর পরপর মজুরি বোর্ড গঠিত হবে। অ্যাকর্ডের চিঠির বিষয়ে জানতে চাইলে তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সহসভাপতি মোহাম্মদ নাছির বলেন, ‘মজুরি বোর্ড গঠন করার আহ্বান জানানোর কোনো এখতিয়ার অ্যাকর্ডের নাই। কারণ, তাদের কার্যক্রম কেবলমাত্র পোশাক কারখানা পরিদর্শন ও তত্ত্বাবধানের মধ্যে সীমাবদ্ধ।’ এইচঅ্যান্ডএমসহ অন্য ক্রেতাপ্রতিষ্ঠানের চিঠির বিষয়ে মোহাম্মদ নাছির বলেন, ‘আমরা প্রতিনিয়ত ক্রেতাদের পোশাকের দাম বাড়াতে অনুরোধ করছি। তারা পোশাকের দাম এক সেন্ট বাড়ায়নি, বরং কমিয়েছে। উল্টো গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির ফলে উৎপাদন খরচ বেড়েছে। কারখানার মান উন্নয়নে বিপুল পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগের চাপ আছে মালিকদের ওপর।

  • পোশাক রফতানি ৬০ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাবে: বিজিএমইএ সভাপতি

    অবকাঠামো সুবিধা নিশ্চিত করা গেলে ২০২১ সাল নাগাদ পোশাক রফতানি আয় ৬০ বিলিয়ন ডলার হতে পারে বলে মনে করেন বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। তিনি বলেন, ইউরোপ এবং আমেরিকার ক্রেতাদের তত্ত্বাবধানে পোশাক খাতের সংস্থার চলছে। ফলে চীন, জাপানসহ বিভিন্ন দেশের উদ্যোক্তা এ দেশে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছেন। এ মুহূর্তে অবকাঠামো উন্নয়নে বিদ্যুত সরবরাহ লাইনের দুর্বলতা কাটানো এবং প্রস্তাবিত ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চল থেকে ঢাকা-চট্টগ্রামে পোশাক খাতের জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দু’টি অর্থনৈতিক অঞ্চল বরাদ্দ দেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি। সিদ্দিকুর রহমান বলেন, দ্রুততম সময়ে এ ব্যবস্থা করা না হলে সংকট তৈরি হবে। কারণ, অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মাণে দশ বছর লেগে গেলে তখন আর বিনিয়োগকারী পাওয়া যাবেনা। ঢাকা অ্যাপারেল সামিট উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে রোববার এসব কথা বলেন তিনি। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে প্রথম সামিট চট্রগ্রামে অনুষ্ঠিত হয়। ওই সামিটের প্রতিপাদ্য ছিল দেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে পোশাক খাত থেকে ৫০ বিলিয়ন ডলার আয়ের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্য বাস্তবায়নে একটি পথ নকশা করে বিজিএমইএ। গত দুই বছরে সেই নকশা অনুযায়ী, ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের চার লেনে উন্নীত হওয়াসহ অনেক কাজ এগিয়েছে বলে দাবি করেন সিদ্দিকুর রহমান। সেই সুবাদেই ৫০ বিলিয়ন ডলার রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছেন বিজিএমইএ সভাপতি।

  • ফুলবাড়ী সেটেলমেন্ট অফিসে অনিয়ম দূর্নীতি

    দিনাজপুরের ফুলবাড়ী সেটেলমেন্ট অফিসে দালাল ফড়–য়াদের তৎপরতা বৃদ্ধি, সাধারণ মানুষের ভোগান্তি। অনিয়ম দূর্নীতি, দেখার কেউ নেই। দিনাজপুরের ফুলবাড়ী সেটেলমেন্ট অফিসে এক যুগ ধরে চলছে জমি জমার মাঠ পর্চার কাজ। ৩০ ধারা, শুনানিতে বাদি বিবাদির নিকট থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। কাগজ বৈধ থাকলেও তাদেরকে মাসের পর মাস হয়রাণি করা হচ্ছে। দেওয়া হচ্ছে না মাঠ পর্চা। আবার অনেকে অবৈধ জাল দলিলের কাগজপত্র জমা দিয়েও পার পেয়ে যাচ্ছে উৎকোচের বিনিময়ে। দীর্ঘ ১ যুগ ধরে ফুলবাড়ী উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার জরিপের কাজ শুরু হয়। শুরু থেকেই চলছে অনিয়ম দূর্নীতি। বর্তমান বেশকিছু ইউনিয়নে মাঠ পর্চার কাজ চলছে। মাঠ পর্চার কাজে বাদী বিবাদীরা কেউ ৩০ ধারায় আবেদন করেছে। যার কাগজপত্র ঠিক আছে তাকেও হয়রাণি করছে। অপরদিকে সেটেলমেন্ট অফিসের কতিপয় দালাল, অফিসের কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে বিবাদীকে মাঠ পর্চা দেওয়ায় দুপক্ষের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হচ্ছে। অযথা সাধারণ মানুষকে হয়রাণি করা হচ্ছে বলে জানান ভুক্তভূগিরা। জানাযায়, ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউপির চককবির গ্রামের হরিপদ পালের স্ত্রী বুলবুলি রাণীর চককবির মৌজার ১৬৬ খতিয়ান ১.১৩ একর জমির ৩টি পর্চার আলাদা আলাদা খতিয়ান করে পর্চা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু গত ২৩/০১/২০১৭ ইং তারিখে ফুলবাড়ী সেটেলমেন্ট অফিসের মোঃ মোশররফ হোসেন ৩ হাজার টাকা নিয়ে আলাদা খতিয়ান খুলে পর্চা না দিয়ে পুরাতুন খতিয়ানে অংশ বসিয়ে দেন। এ ব্যাপারে গতকাল মঙ্গলবার বুলবুলি রাণি পালের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বললে তিনি জানান, উক্ত অফিসের মোঃ মোশাররফ হোসেন পৃথক পৃথক পর্চা দেওয়ার কথা বলে  ৩ হাজার টাকা উৎকোচ গ্রহণ করেন। কিন্তু একই পর্চায় সবার নাম দেন। উক্ত সেটেলমেন্ট অফিসে এলাকার শত শত মানুষ দালাল খপ্পরদের পড়ে সর্বশান্ত হচ্ছে। বর্তমান উক্ত সেটেলমেন্ট অফিসে শিবনগর ইউপির সদস্য মজনু হক, মোঃ মোশাররফ হোসেন, বেতদিঘী ইউপির মোঃ আব্দুল আলিম, খয়েরবাড়ী ইউপির শ্রী লিটন কুমার সহ আরও বেশ কয়েকজন দালাল রিতিমত টাকার বিনিময়ে অবৈধকে বৈধ আর বৈধকে অবৈধ করে দিচ্ছেন। এমন অভিযোগ এলাকাবাসীর রয়েছে। ফুলবাড়ী উপজেলার অনেকে কয়েক যুগ আগে এবং স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ভারতে বা পাকিস্থানে চলে গেছেন এবং অনেকে মারা গেছেন তাদের নামের জমির জাল দলিল সৃষ্টি করে প্রভাবশালীরা মাঠ পর্চা নিয়েছেন এমন অভিযোগ রয়েছে।     এছাড়া উক্ত অফিস থেকে প্রতিদিন ৪০ থেকে ৫০ জন জমি জমার মালিক কে ৩০ ধারা শুনানিতে নোটিশ প্রদান করে। তারা নোটিশ পাওয়া মাত্র সেটেলমেন্ট অফিসে এলে তাদের কে হাজিরা দিতে হয়। এ সময় প্রতি নোটিশের হাজিরায় ৫০ টাকা করে নেওয়া হচ্ছে। এমন অভিযোগ করেছেন সুলতানপুর গ্রামের প্রদীপ, সুনিল চন্দ্র, মধ্য সুলতান পুরের বুলবুল সহ অনেকে। এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী সহ কারী সেটেলমেন্ট অফিসার মোঃ আফসার আলীর সাথে কথা বললে তিনি জানান, উক্ত অফিসে কর্মরত তারা কেউ এই অফিসের নিয়োগ প্রাপ্ত কর্মচারী নয়। তারা আমাদেরকে সহযোগীতা করেন। তবে তাদের বিরুদ্ধে অনিয়ম দূর্নীতির কোন অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে অভিযোগ উঠেছে ফুলবাড়ী সেটেলমেন্ট অফিসে কর্মরত বেশ কয়েকজন দালাল অনিয়ম দূর্নীতির মাধ্যমে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়েছেন। তাদের কারণে সাধারণ মানুষ উক্ত অফিসে সুষ্ঠু ভাবে কাজ করতে পারছে না। তাদের মাধ্যমে উৎ কোচের টাকা চলে যায় কর্মকর্তাদের পকেটে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগীরা দালাল ও দূর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ভূমি মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

  • ২০৪১ সাল নাগাদ এশিয়ার অর্থনীতির কেন্দ্রবিন্দু হবে বাংলাদেশ

    বাংলাদেশ ২০৪১ সাল নাগাদ এশিয়ার অর্থনীতির কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার রাজধানীর একটি হোটেলে ২০৩০ ও পরবর্তী অর্থনীতি শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, সারাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হবে। যেখানে সেখানে শিল্প গড়ে উঠবে না। এতে বিদেশি বিনিয়োগ আরও বাড়বে। এছাড়া বাংলাদেশকে উন্নত অর্থনীতির দেশ গড়ার জন্য সরকার সুদূরপ্রসারী কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। শেখ হাসিনা বলেন, আমরা এমডিজি অর্জনে যেমন সফলতা অর্জন করেছি তেমনি এসডিজি অর্জনেও সফলতা অর্জন করব। এমডিজি অর্জনে বাংলাদেশ বিশ্বে রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। আশা করি, এসডিজি অর্জনের আমরা রোল মডেলে পরিণত হবো। তিনি জানান, ২০২১ সালের মধ্যে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে যাবে। কেউ অন্ধকারে থাকবে না। দারিদ্র্যের সীমা আমরা কমিয়ে এনেছি, আরও কমানো হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে মাথাপিছু আয় ১২ হাজার ৬০০ ডলারে উন্নীত হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। আসুন আমরা সবাই মিলে জাতির পিতার সোনার বাংলা গড়তে একসঙ্গে কাজ করি।

আন্তর্জাতিক

ট্রাম্পের ফোন ট্যাপিংয়ের তদন্ত চায় হোয়াইট হাউস

আমেরিকায় বিগত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারাভিযানের সময় ওবামা প্রশাসন ক্ষমতার অপব্যবহার করেছিল কিনা, তা মার্কিন কংগ্রেসকে পরীক্ষা করে দেখতে আহ্বান জানিয়েছে হোয়াইট হাউস কর্তৃপক্ষ।এর আগে, গত শনিবার বিদায়ী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার বিরুদ্ধে তার ফোন ট্যাপ বা ফোনে আঁড়ি পাতার অভিয়োগ তোলেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। যদিও এর পক্ষে তিনি কোন প্রমাণ দেননি।তবে সাবেক প্রেসিডেন্ট ওবামার একজন মুখপাত্র বলেছেন, অভিযোগ মিথ্যা। তিনি কখনো কোন মার্কিন নাগরিকের ওপর নজরদারির নির্দেশ দেননি।ইতিমধ্যে বিগত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার ভূমিকা নিয়ে কংগ্রেস একটি তদন্ত করছে। ট্রাম্পের প্রেস সেক্রেটারি শন স্পাইসার বলেছেন, সেই তদন্তে এটাও দেখা উচিৎ যে সাবেক প্রেসিডেন্ট তার ক্ষমতার অপব্যবহার করেছিলেন কিনা।এদিকে, বেশ কজন রিপাবলিকান এবং ডেমোক্রেট রাজনীতিক প্রমাণ হাজির করতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তিনি বা তার কোনও মুখপাত্র কোন প্রমাণ দেননি।  

  • আমেরিকান চেতনা পুনরুজ্জীবিত’ করার অঙ্গীকার

    মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথম কংগ্রেস বক্তৃতায় ‘আমেরিকান চেতনা পুনরুজ্জীবিত’ করার অঙ্গীকার করেছেন। তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ‘আমেরিকান চেতনার পুনরুজ্জীবন’ প্রত্যক্ষ করছে। ট্রাম্প সম্প্রতি ইহুদী সমাধিক্ষেত্রে তাণ্ডব ও কানসাসে ঘৃণাজনিত হামলায় এক ভারতীয়কে হত্যার তীব্র নিন্দা জানান।   মঙ্গলবার রাতে ঘণ্টাব্যাপী দীর্ঘ বক্তৃতায় ট্রাম্প সাম্প্রতিক ঘৃণাজনিত অপরাধের উল্লেখ করে বলেন, ‘আমরা এমন একটি দেশে বাস করি যেখানকার মানুষ একসঙ্গে সকল ঘৃণাজনিত অপরাধের নিন্দা জানায়। এদেশের মানুষ সব ধরনের অপশক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ। ’  অভিবাসীদের ব্যাপারে তিনি বলেন, এ বিষয়ে ‘বাস্তবসম্মত ও ইতিবাচক’ সংস্কার সম্ভব। তিনি অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা প্রদানে একটি উপায় বের করতে পারেন বলে উল্লেখ করেন। এই ইস্যুতে মার্কিন আইনপ্রণেতাদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেয়ার সময়ে ট্রাম্প ‘অভিবাসন আইন প্রয়োগের মাধ্যমে’ মার্কিন নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার অঙ্গীকার করেন। তিনি এর আগে গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের ব্যাপারে আত্মপক্ষ সমর্থন করেন। ট্রান্স প্যাসিফিক পার্টনারশিপ বাণিজ্য চুক্তি প্রত্যাহার ও মার্কিন-মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের ব্যাপারে যুক্তি তুলে ধরেন ট্রাম্প।

  • পশ্চিম মসুলে অবরুদ্ধ আইএস

    ইসলামিক স্টেটের (আইএস) শক্ত ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত ইরাকের মসুল শহরের পশ্চিমাঞ্চল থেকে বের হওয়ার শেষ প্রধান সড়কটিও বন্ধ করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত ইরাকি সেনাবাহিনী। এর ফলে ওই শহরটির একটি এলাকার মধ্যে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে আইএস জঙ্গিরা। বুধবার ইরাকি সেনাবাহিনীর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জেনারেল এবং স্থানীয়রা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।   আইএসের দখলমুক্ত করতে পরিচালিত অভিযানের ১০০ দিন পর চলতি বছরের জানুয়ারিতে মসুলের পূর্বাঞ্চল পুনরুদ্ধার করে ইরাকি বাহিনী। এরপর ১৯ ফেব্রুয়ারি টাইগ্রিস নদীর অপর পাড়ে পশ্চিম মসুলে অভিযান শুরু হয়। পশ্চিম মসুলে আইএসকে পরাজিত করতে পারলে ইরাকে জঙ্গিগোষ্ঠীটির দখলদারিত্ব কার্যত নিঃশেষ হয়ে যাবে।

  • উত্তর কোরিয়ার কাছে ‘৫ হাজার টন’ রাসায়নিক অস্ত্র মজুদ

    উত্তর কোরিয়ার কাছে পাঁচ হাজার টন রাসায়নিক অস্ত্র মজুদ আছে। সম্প্রতি এমনটাই দাবি করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। সেই সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উনের সৎ ভাই কিম জং ন্যামের হত্যাকাণ্ডে যে রাসায়নিক পদার্থ ভিএক্স ব্যবহৃত হয়েছে তাও উত্তর কোরিয়ার কাছে বলে দাবি করেছে তারা। স্থানীয় সময় শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়ার পক্ষ থেকে ওই দাবি তোলা হয়। খবর এএফপির।   দক্ষিণ কোরিয়ার এক প্রতিরক্ষা বিশ্লেষক জানান, উত্তরের কাছে বিপুল পরিমাণ ভিএক্স রয়েছে। এই ভিএক্স অনেক কম খরচে তৈরি করা যায়। একজন মানুষের স্নায়ু ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে বিষাক্ত এই রাসায়নিকের এক ফোঁটাই যথেষ্ঠ। এদিকে মালয়েশিয়ার পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছেউত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের ভাই কিম জং ন্যামকে এই পদার্থ ব্যবহার করে হত্যা করা হয়। মালয়েশিয়ার পুলিশ জানায়, কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে কিম জং ন্যামের মুখমণ্ডলে ভিএক্স মেখে দেওয়া হয়েছিল বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। ওই সময় তিনি কুয়ালালামপুর থেকে ম্যাকাও যাচ্ছিলেন।

শিক্ষাঙ্গন

প্রধান শিক্ষকের বিদায়ী সংবধনা অনুষ্ঠিত

বুধবার বগুড়া সদরের গোকুল বালক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লায়লা নাজনীন এর বিদায়ী সংবর্ধনা স্কুল হল রুমে অনুষ্ঠিত হয়। অত্র স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মাওঃ আলহাজ্ব আব্দুর রউফ এর সভাপতিত্বে শিক্ষার্থীদরে উদ্যের্শে  বক্তব্য রাখেন গোকুল বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম, ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি ও বগুড়া সদর উপজেলা কৃষকদলের সাধারন সম্পাদক এবিএমএস মিলন, ইউপি সদস্য এমদাদুল হক দুলাল, সাজেদুল ইসলাম সুজন, হাজেরা বেগম, রুমি বেগম, ইঞ্জি: আহম্মেদ সোহেল এছাড়াও অত্র স্কুলের সকল শিক্ষক/ শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে নবাগত প্রধান শিক্ষক রেহেনা ইয়াছমিনকে ফুলেল শুভেচ্ছা দেওয়া হয়।

  • মোঃ খলিলুর রহমান বার্ধক্য জনিত কারণে কার্ডিও কেয়ার হাসপাতালে ইন্তেকাল

    ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ঊর্ধ্বতন সহকারি পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) নাজিম উদ্দিন সরকার ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা  মোহাম্মদ করিম সরকারের বাবা এবং সোনালী ব্যাংকের  সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার (অবসরপ্রাপ্ত) মোঃ খলিলুর রহমান বার্ধক্য জনিত কারণে আজ রবিবার মার্চ ০৫, ২০১৭ তারিখ রাত ৩টায় ঢাকায় কার্ডিও কেয়ার হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে---------------- রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮। বাদ আসর নিজ বাসভবনে ( সোনালী কুটির, ষোল ঘর, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে) জানাজা শেষে চাঁদপুরে পৌর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তিনি পাঁচ পুত্র, এক কন্যা ও নাতী-নাতনীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান, উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ এম ইসলাম, উপ- উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম মাহাবুবুল হক মজুমদার,  ট্রেজারার হামিদুল হক খান , রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল হক, পরিচালক (প্রশাসন)  মোহাম্মদ ইমরান হোসেন ও ড্যাফোডিল পরিবারের সর্বস্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ গভীর শোক এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ।

  • স্কুল কলেজ ম্যানেজমেন্ট সফটওয়ার এর উদ্বোধন করেন সংসদ উপনেতা

    মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানের অংশ হিসাবে ফরিদপুরের সালথা উপজেলাধীন সকল মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ্যাডুমেন ৪.৩ (স্কুল কলেজ ম্যানেজমেন্ট সফটওয়ার) এর শুভ উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের মাননীয় সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি। বুধবার বিকালে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে এ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ মোবাশ্বের হাসানের সভাপতিত্বে এসময় সম্মানিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সংসদ উপনেতার জ্যেষ্টপুত্র, নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আয়মন আকবার চৌধুরী বাবলু, উপনেতার মেজপুত্র সাজিদ আকবার চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মো. মনিরুজ্জামান, উপজেলা চেয়ারম্যা মো. ওয়াহিদুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক উজ্জামান ফকির মিয়া, এডুমেন সফটওয়ার এর কর্মকর্তাবৃন্দ প্রমূখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কৃষ্ণ চন্দ্র চক্রবর্তী। বক্তারা এসময় বলেন, বাংলাদেশের সর্ব প্রথম এই উপজেলায় এডুমেন সফটওয়ারের  উদ্বোধন করা হলো। উপজেলার সকল মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কলেজ ও মাদ্রাসায় এ  সফটওয়ারের কার্যক্রম চালু হয়েছে। সালথা বাংলাদেশের প্রথম উপজেলা।

  • ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া আজ শুক্রবার একুশে বই মেলায়

    জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া আজ শুক্রবার একুশে বই মেলায় কবি শাহ্ মো. আহসান মঞ্জুর রচিত ‘হে নবীন’ , অমিতাভ দাশ হিমুন রচিত ‘পরম্পরার চোখ’ এবং মোঃ জাকারিয়া রহমান জামিল রচিত ‘ অনুভুতির খেলা’ শীর্ষক কবিতার বইসহ বেশ কয়েকটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। এসময় ডেপুটি স্পিকার বলেন, লেখনির মধ্য দিয়ে একজন মানুষের সৃজনশীল মননের বিকাশ ঘটে। কবিতা মানুষের মনকে পরিচ্ছন্ন আনন্দ দেয়। এসময় তিনি বর্তমান প্রজন্মকে আরও বেশি বই পড়ার উপর গুরুত্বারোপ করেন।তিনি বলেন, একজন বইপ্রেমি মানুষ কখোনোই মাদকাসক্ত হয়না, জঙ্গি বা সন্ত্রাসবাদকে প্রশ্রয় দেয়না। এমনকি কোন ধরণের কুসংস্কারের বেড়াজালে নিজেকে আড়ষ্ঠ করেনা। এসময় তিনি বর্তমান প্রজন্মকে বইমুখী করতে   সুস্থ ও মুক্তচিন্তার বিকশে সহায়ক  বই আরও বেশি করে লেখার জন্য লেখকদের প্রতি আহবান জানান।

তথ্যপ্রযুক্তি

post-10

যারা স্ন্যাপচ্যাটকে অনুসরণ করতে পারে

অবশেষে ওয়ালস্ট্রিটে নাম লেখাতে তৈরি ছবি ম্যাসেজিং সার্ভিস স্ন্যাপচ্যাট৷ প্রতিষ্ঠানটির প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিও সফলতার মুখ দেখলে আরো অনেক ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান স্টক মার্কেটে নাম লেখাতে পারে৷

  • ডাটা সেন্টার নিয়ে বেসিসের সেমিনার অনুষ্ঠিত

    বেসিসের মিলনায়তনে ডাটা সেন্টারের বর্তমান অবস্থা, এর নিরাপত্তাসহ সামগ্রিক বিষয়ে নিয়ে ‘গ্লোবাল আইটি ট্রেন্ডস : হাউ উইল দে এফেক্ট ইওর ডাটা সেন্টার স্ট্রাটেজি’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেসিস ও ইকাডেমি আয়োজিত এই সেমিনারে বেসিস সদস্য কোম্পানির প্রতিনিধিসহ আগ্রহী অর্ধশতাধিক লোক অংশ নেন।
    সেমিনারে বেসিসের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান। আলোচনা করেন এপিআই সিঙ্গাপুরের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ওট্টো ডি রো এবং ইকাডেমির পরিচালক মনির আহমেদ।
    অনুষ্ঠানে বেসিসের সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান বলেন, সময়ের চাহিদায় স্থানীয় পর্যায়ে ডাটা সেন্টার স্থাপন আবশ্যক হয়ে পড়েছে। ব্যক্তিগত থেকে শুরু করে প্রাতিষ্ঠানিক এমনকি সরকারি গুরুত্বপূর্ণ ডাটা সংরক্ষণের ক্ষেত্রে সঠিক নিয়মে ডাটা সেন্টার স্থাপন অত্যন্ত জরুরী। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্টারনেট অব থিংকস, অগমেন্টেড/ভার্চুয়াল রিয়েলিটির জনপ্রিয়তায় প্রতিষ্ঠানগুলোকে আইটি ও ডাটা সেন্টার স্ট্রাটেজিতে গুরুত্ব দিতে হবে। বেসিসের পক্ষ থেকে এর সদস্যসহ বাংলাদেশি আইটি কোম্পানির ডাটা সেন্টার সম্পর্কিত পরিকল্পনা গ্রহণে কাজ করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। আগামীতে এ ধরণের সেমিনারের ধারাবাহিকতা থাকবে বলে জানান বেসিস সহ-সভাপতি।
    অনুষ্ঠানের মূল আলোচক এপিআই সিঙ্গাপুরের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ওট্টো ডি রো ইন্টার‌্যাক্টিভ প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে বর্তমান ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের নতুন ব্যবসায় ও সোশ্যাল মিডিয়ার পরিবর্তন ও এর ভূমিকা নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন। একইসাথে গ্রাহকদের চাহিদানুযায়ী নিরাপদ ডাটা সেন্টার ব্যবস্থাপনা নিয়ে করণীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন। তিনি জানান, নতুন ব্যবসায় ও তথ্যপ্রযুক্তি দক্ষতার দ্রুতবর্ধমান চাহিদানুসারে আগামী কয়েক বছরে ডাটা সেন্টার ইন্ডাস্ট্রি অন্তত দুই ডিজিট বড় হবে।
    ইকাডেমির পরিচালক মনির আহমেদ ডাটা সেন্টার দক্ষতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, আমাদের দেশে ডাটা সেন্টার প্রযুক্তিতে দক্ষ জনবলের অভাব রয়েছে। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষা নতুন এই প্রযুক্তির সাথে সমন্বিত নয়। অনেকেই ভেন্ডর সার্টিফিকেশন প্রশিক্ষণ নিলেও ডাটা সেন্টার ফ্যাসিলিটি ডিজাইন, অপারেশন, ক্যাপাসিটিতে প্রশিক্ষণের শিক্ষার্থী খুবই কম। কিন্তু সময়ের চাহিদায় এ বিষয়ে যথাযথ প্রশিক্ষণ প্রয়োজন। বেসিসের সকল সদস্য কোম্পানি ও প্রফেশনালদের জন্য ইপিআই এর বাংলাদেশি পার্টনার ইকাডেমিতে সকল প্রশিক্ষণে ২০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে বলেও ঘোষনা দেন তিনি।

  • সৌর বিদ্যুৎ চালিত ড্রোন

    সৌর বিদ্যুৎ চালিত বিমানের পর এবার এলো ড্রোন। বিজ্ঞানীরা এই প্রথম সৌর বিদ্যুৎ চালিত ড্রোন উদ্ভাবন করতে সক্ষম হয়েছেন। এই ড্রোনটি সম্পূর্ণ সৌর বিদ্যুৎ চালিত। 

    ড্রোনটি তৈরি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব মিনিসোটার একদল গবেষক। ড্রোনটি দেখতে অনেকটা বিমানের মত। এতে বিমানের মত লম্বা পাখা আছে। এই পাখা ভাঁজ করা যায়। ভাঁজ খুললে এটি লম্বায় ছয় ফুট। 

    ড্রোনটিতে ক্যামেরা সংযোজন করা আছে। এর উদ্ভাবকেরা জানিয়েছেন, ড্রোনটি দিয়ে শস্যক্ষেতের অবস্থা পর্যালোচনা করা হবে। 

    এর আগে সৌরবিদ্যুৎ চালিত বিমান সোলার ইমপালস উদ্ভাবন করা হয়। এর পরীক্ষামূলক উড়ান সম্পন্ন করার পর এটি পুরো পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করতে সমর্থ হয়েছে।

  • শুরু হচ্ছে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭

    বাংলাদেশের তৈরি সফটওয়্যার দেশি বিদেশিদের কাছে পরিচিত করতে বুধবার ঢাকায় শুরু হচ্ছে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭।

    শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১ থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি এই প্রদর্শনী সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে বলে শনিবার বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

    ঢাকার কারওয়ান বাজারে বেসিস কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে বেসিস সভাপতি মোস্তফা জব্বার জানান, দেশি-বিদেশি সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান, আন্তর্জাতিক আইটি সংগঠন, দেশি সফটওয়্যার কোম্পানিসহ শতাধিক প্রতিষ্ঠান তাদের তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করবে একাদশতম সফটএক্সপোতে।

    “পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহীদের চাকরির সুযোগ দিতে থাকছে ‘এন্টারপ্রেনারশিপ অ্যান্ড ক্যারিয়ার ইন আইটি’ শীর্ষক আয়োজন।”

    প্রোগ্রামিং, ডিজাইনিং, মার্কেটিং, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ও অ্যাকাউন্টিংসহ বিভিন্ন বিষয়ে আগ্রহীরা তাদের সিভি এ মেলায় আসা দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানের স্টলে জমা দেওয়ার সুযোগ পাবেন।

    বেসিসের পরিচালক সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবায় রপ্তানি বাড়াতে এবারের মেলায় নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্কসহ বিভিন্ন দেশের অন্তত ১০টি কোম্পানির সঙ্গে দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর আন্তর্জাতিক ‘বিজনেস টু বিজনেস ম্যাচম্যাকিং সেশনের’ আয়োজন করা হয়েছে।

    তিনি জানান, তথ্যপ্রযুক্তির বিভিন্ন দিক নিয়ে ২০টি সেমিনার, ১০টি টেকনিক্যাল সেশন এবং প্রথম ও চতুর্থ শ্রেণির শিশুদের নিয়ে বিশেষ কোডিং প্রোগ্রাম থাকছে এবারের মেলায়।

    কোডিং প্রোগ্রাম শিশুদের প্রযুক্তি ব্যবহারে আগ্রহী করে তুলবে- এমন আশা প্রকাশ করে মোস্তফা জব্বার বলেন, “বাংলাদেশের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে সবচেয়ে বেশি রূপান্তর ঘটেছে সফটওয়্যার খাতে। নতুন প্রজন্ম তীব্র গতিতে এই খাতে এগিয়ে আসছে।”

    এবারের প্রদর্শনীতে ছোট-বড় মিলিয়ে ৪২টি প্যাভেলিয়ন ও ৪৯টি স্টল থাকছে বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

    অন‌্যদের মধ‌্যে মাইক্রোসফট বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবীর, সিটি ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোহেল আর কে হুসেইন, বেসিসের সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান, পরিচালক উত্তম কুমার পাল সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

    আগ্রহী যে কেউ প্রদর্শনীস্থলে গিয়ে কিংবা অনলাইনের নিবন্ধন করে (http://softexpo.com.bd/visitor/registration) বিনামূল্যে সফটএক্সপোতে অংশ নিতে পারবেন।

বিনোদন

Back to Top

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top