• দুর্নীতির বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে রাষ্ট্রপতির আহ্বান

    রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সকল পর্যায়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে এবং গণসচেতনতা সৃষ্টি করতে দুর্নীতির দমন কমিশনের (দুদক) প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।দুদকের চার সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল সংস্থার চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের নেতৃত্বে আজ বিকেলে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির কাছে দুদকের বার্ষিক রিপোর্ট-২০১৬ পেশ করতে গেলে তিনি বলেন, দুর্নীতি প্রতিরোধে তৃণমূলসহ সর্ব পর্যায়ে সচেতনতা সৃষ্টির কোন বিকল্প নেই। সামাজিক প্রতিরোধ সব রকমের দুর্নীতির রোধে সহায়ক হবে।আবদুল হামিদ যথাযথ তদন্তের মাধ্যমে দুর্নীতি সংক্রান্ত মামলাগুলো সময় মতো নিষ্পত্তি এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য দুদক প্রতিনিধিদলকে উপদেশ দেন। রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদিন বাসস’ক এ তথ্য জানান।দুদক প্রধান সংস্থার সার্বিক কর্মকান্ড এবং গত বছরের সাফল্য সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। তিনি দুদকের কর্মকান্ড আরো জোরদারে রাষ্ট্রপতির সমর্থন ও দিক-নির্দেশনা কামনা করেন।ইকবাল মাহমুদ বলেন, ২০১৬ সালে দুদক ১২ হাজার ৯৯০টি দুর্নীতির অভিযোগ পেয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৭টি অভিযোগ তদন্তের উদ্যোগ নিয়েছে দুদক। ৫৮৮টি অভিযোগ সংশ্লিষ্ট অধিদফতর ও মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য। তিনি আরো বলেন, দুদক ২০১৬ সালে ৩৫৯টি দুর্নীতির মামলা দায়ের করেছে।এ সময় দুদক কমিশনার ড. নাসির উদ্দিন আহমেদ, আ ফ ম আমিনুল ইসলাম এবং রাষ্ট্রপতির সংশ্লিষ্ট সচিবরা উপস্থিত ছিলেন।

  • প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গার সৌজন্য সাক্ষাৎ

    শ্রীলংকার সাবেক প্রেসিডেন্ট চন্দ্রিকা বন্দরনায়েকে কুমারাতুঙ্গা আজ গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বলেন, তাঁরা পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ও তাদের রাজনৈতিক দলের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই সঙ্গে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গাও শ্রীলংকার ফ্রিডম পার্টির সভাপতি ছিলেন। এই দুই রাজনৈতিক দলের মধ্যে অনেক মিল রয়েছে। বৈঠকে তাঁরা তাদের রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা বিনিময় করেন। এই দুই দলের প্রতিষ্ঠাতাদ্বয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শ্রীলংকার নেতা সলমন বন্দরনায়েকে উভয়ে নির্মমভাবে নিহত হন। তাদের রাজনৈতিক দল দীর্ঘদিন অত্যাচার ও নির্যাতনের শিকার হয়।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চন্দ্রিকাকে বাংলাদেশের সমাজের বিভিন্ন দিক অবহিত করে বলেন, ধর্মীয় বিশ্বাস নির্বিশেষে এখানে সকলে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করছে এবং একসঙ্গে প্রত্যেক উৎসবে যোগ দিচ্ছে।প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকার তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ ছাড়াই পার্বত্য চট্টগ্রামের জাতিগত সমস্যার সমাধান করেছে। প্রেস সচিব বলেন, বৈঠকে উভয় নেতা তাদের ব্যক্তিগত সম্পর্কের কথা স্মরণ করেন। প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগম বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গা লন্ডনভিত্তিক গ্লোবাল লিডারশীপ ফাউন্ডেশনের একটি কর্মসূচিতে যোগ দিতে ৪ দিনের সফরে ২১ মে ঢাকায় আসেন।

  • ইসির প্রস্তাবিত ‘রোডম্যাপ’ বিষয়ে আওয়ামী লীগ পজিটিভ : ওবায়দুল কাদের

    আগামী নির্বাচনের কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নে নির্বাচন কমিশনের প্রস্তাবিত ‘রোডম্যাপ’ এর বিষয়ে আওয়ামী লীগ পজিটিভ বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আজ বুধবার সকালে কমলাপুর বাস ডিপোতে আসন্ন রোমজানের ঈদে বিআরটিসি’র সেবার মান বৃদ্ধি বিষয়ক মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের রোডম্যাপের কথা শুনেছি। আমাদের প্রতিক্রিয়া পজিটিভ।’নির্বাচন নিয়ে অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচন যথাসময়ে সংবিধান অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনেই অনুষ্ঠিত হবে। 

  • সৌদি আরব সফর শেষে দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌদি আরবে তাঁর ৪ দিনের সরকারি সফর শেষে গত রাতে দেশে ফিরেছেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট প্রধানমন্ত্রী এবং তাঁর সফরসঙ্গীদের নিয়ে গত রাত ১টা ৩০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে। সৌদি বাদশা কিং সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে প্রথম আরব ইসলামিক-আমেরিকান (এআইএ) সম্মেলনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ২০ মে রিয়াদের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন। সফরকালে তিনি মক্কায় হারাম শরীফে পবিত্র ওমরা পালন এবং মদিনায় হযরত মুহাম্মদ (সা.) রওজা মোবারক জিয়ারত করেন।‘জয় আমাদের হবে’-এই শ্লোগান নিয়ে রোববার সৌদি আরবের রাজধানীতে বাদশাহ আবদুল আজিজ ইন্টারন্যাশনাল সম্মেলন কেন্দ্রে বহু প্রত্যাশিত এআইএ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মেলনে চরমপন্থা এবং অবৈধ অর্থায়নের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের উপায় নিয়ে আলোচনার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং আরব ও মুসলিম বিশ্বের ৫৬টি দেশের নেতারা সম্মেলনে যোগ দেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী সম্মেলনে তাঁর লিখিত ভাষণে সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদীদের অস্ত্র সরবরাহ বন্ধে বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান।সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সম্মেলনে শেখ হাসিনা আরো কিছু প্রস্তাব উত্থাপন করেন। রোববার এআইএ সম্মেলন শুরুর আগে প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এবং তাঁকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান। সম্মেলনের পাশাপাশি শেখ হাসিনা তাজাক প্রেসিডেন্ট ইমোমালি রাহমুন এবং মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নজিব রাজাকের সঙ্গে বৈঠক করেন।

  • ২নং রসুলপুর ইউনিযন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা

    কাহারোল উপজেলার ২নং রসুলপুর ইউনিয়ন পরিষদের ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরের জন্য ৯৯ লক্ষ ১২ হাজার ৬৭০ টাকার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা করা হয়। গতকাল বুধবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে চেয়ারম্যান মোঃ নজরুল ইসলাম বাজেট পেশ করেন। এসময় ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মোঃ আবেদ আলী, ইউপি সদস্য আব্দুল কুদ্দুস, মোঃ আবুল কাশেম, মোঃ ফজলুল হক উপস্থিত ছিলেন। সভায় রাজস্ব খাতে ২৭ লক্ষ ৮০ হাজার ৯২৬ টাকা উন্নয়ন খাতে ৬৯ লক্ষ টাকা এবং উদ্বৃত্ত ২ লক্ষ ৩১ হাজার ৭৪৪ টাকা দেখিয়ে মোট ৯৯ লক্ষ ১২ হাজার ৬৭০ টাকা উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা করা হয়। এসময় ইউ,পি সচিব মোঃ সরিফুল ইসলাম।

  • দেশের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর জেদ্দা ত্যাগ

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর চারদিনের সৌদি আরব সফর শেষে আজ দেশের উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছেন।প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফর সঙ্গীদের নিয়ে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইটটি বিকেলে কিং আবদুল আজিজ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট ত্যাগ করে।সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ, জেদ্দায় বাংলাদেশের কনস্যাল জেনারেল এফ এম বোরহান উদ্দিন ও সৌদি সরকারের প্রতিনিধিগণ বিমান বন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান।আজ মধ্য রাতে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী ফ্লাইটটি ঢাকায় অবতরণের কথা রয়েছে।সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সউদের আমন্ত্রণে আরব ইসলামিক-আমেরিকান (এআইএ) সম্মেলনে যোগ দিতে চারদিনের সরকারি সফরে গত ২০ মে প্রধানমন্ত্রী রিয়াদের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন। সফরকালে শেখ হাসিনা মক্কার হারেম শরীফে (ক্বাবা) পবিত্র ওমরাহ পালন করেন এবং মদিনা শরীফে মহানবী হযরত মুহম্মদ (সা.)-এর রওজা মোবারক জিয়ারত করেন।‘জয় আমাদেরই হবে’ এই স্লোগান নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং সম্মেলনে ৫৬ আরব ও মুসলিম দেশের নেতারা সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলা ও জঙ্গিদের অর্থায়ন প্রতিরোধে পথ খুঁজে বের করার বিষয়ে আলোচনা করেন।বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী তাঁর লিখিত বক্তৃতায় বিশ্ব নেতৃবৃন্দের কাছে জঙ্গিবাদী ও সন্ত্রাসীদের কাছে অস্ত্র যোগান দেয়া বন্ধ করার আহ্বান জানান।সম্মেলনে শেখ হাসিনা জঙ্গিবাদ দমনে বেশ কয়েকটি প্রস্তাব পেশ করেছেন।

  • প্রধানমন্ত্রীর পবিত্র উমরাহ্ পালন

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতরাতে এখানে পবিত্র উমরাহ্ পালন করেছেন। তিনি বর্তমানে সৌদি আরবে চারদিনের সরকারি সফরে রয়েছেন। শেখ হাসিনা প্রথমে পবিত্র কাবা শরীফের চার পাশে তোয়াফ করেন এবং পরে সাফা ও মারওয়ায় হাঁটেন ও দৌড়ান। তিনি দেশবাসী ও সমগ্র মুসলিম বিশ্বের শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করেন।পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী এবং প্রধানমন্ত্রীর অন্যান্য সফরসঙ্গীও উমরাহ্ পালন করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পবিত্র মক্কা নগরীতে মসজিদে নববী’তে মহানবী হযরত মুহম্মদ (সা.) এর রওজা মোবারক জিয়ারত শেষে জেদ্দায় বাদশাহ আবদুল আজিজ আর্ন্তজাতিক বিমান বন্দরে পৌছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে রোববার অনুষ্ঠিত প্রথম আরব ইসলামিক আমেরিকান শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সাউদের আমন্ত্রনে ২১ মে সৌদি আরবে যান। আজ বিকেলে দেশের উদ্দেশ্যে তাঁর মক্কা ত্যাগ করার কথা। 

  • ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাথে ইউরোপের কয়েকটি ইউনিভার্সিটির মধ্যে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

    ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাথে ইউরোপের বেশ কয়েকটি ইউনিভার্সিটির মধ্যে  সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। গত ১৯-২১ মে রোমানিয়ার দানুবিয়াস ইউনিভার্সিটি অব গ্যালাটিতে অনুষ্ঠিত ‘এশীয় ও ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দক্ষতা ও গতিশীলতা বৃদ্ধি’ শীর্ষক এসোসিয়েশন অব ইউনভার্সিটিজি অব এশিয়া এন্ড প্যাসিফিক(অটঅচ) এর ১৫-তম ফোরামে এসব চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. সবুর খান এসব চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেন। দানুবিয়াস ইউনিভার্সিটি অব গ্যালাটির সহযোগিতায় এবং এইউএপির (অটঅচ) আয়োজনে অনুষ্ঠিত ফোরামে এইউএপির প্রেসিডেন্ট ড. সাং হি এবং দানুবিয়াস ইউনিভার্সিটির রেক্টর ড. অ্যান্ডি পাসকাসহ বিশ্বের ২০টি দেশের ২৪টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৫০ জন অধ্যাপক, শিক্ষাবিদ, গবেষক ও আমন্ত্রিত অতিথি উপস্থিত ছিলেন। এশিয়া ও ইউরোপের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার্থীদের দক্ষতা ও গতিশীলতা বৃদ্ধি করতে এ ফোরামের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে এইউএপির প্রেসিডেন্ট ও দানুবিয়াস ইউনিভার্সিটির রেক্টরের হাতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা স্মারক তুলে দেন মো. সবুর খান। এই ফোরামে অংশগ্রহণের মাধ্যমে এবং সমঝোতা স্মারক সইয়ের মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষা ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের পরিধি বাড়ল। এই সমঝোতা চুক্তির সবচেয়ে বড় সাফল্য হচ্ছে ভবিষ্যতে এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী বিনিময়, শিক্ষক বিনিময়, শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ, ক্রেডিট ট্রান্সফার ও  যৌথ গবেষণা কার্যক্রম সম্পাদিত হবে। ক্যাপশন ঃ রোমানিয়ার দানুবিয়াস ইউনিভার্সিটি অব গ্যালাটিতে অনুষ্ঠিত ‘এশীয় ও ইউরোপীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দক্ষতা ও গতিশীলতা বৃদ্ধি’ শীর্ষক এসোসিয়েশন অব ইউনভার্সিটিজি অব এশিয়া এন্ড প্যাসিফিক(অটঅচ) এর ১৫-তম ফোরামে ইউরোপের বেশ কয়েকটি ইউনিভার্সিটির সাথে  সমঝোতা স্মারক করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. সবুর খান।

  • ফুলবাড়ীর আলাদীপুর ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা

    দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার আলাদীপুর ইউনিয়ন পরিষদের আগামী ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড বাস্থবায়নের লক্ষমাত্রা নিয়ে ১ কোটি ২২ লক্ষ ৭৮  হাজার ৩৬ টাকার বাজেট ঘোষনা করা হয়। আলাদীপুর ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো. মোজাফ্ফর হোসেন সরকার গতকাল ২৩ শে মে মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় ইউনিয়ন পরিষদ সভা কক্ষে উন্মুক্ত এই ঘোষনা করেন।  বাজেট পড়ে শুনান, ইউনিয়ন পরিষদের ( ইউপি সচিব) মো. ইউনুস আলী । এ সময় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মো. মানিক মন্ডল।  ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট সরকারী উন্নয়ন অনুদান  ১ কোটি ২২ লক্ষ ৭৩  হাজার ৩৬ টাকার। রাজস্ব খাতে আয় ইজারা বাবদ প্রাপ্তি খোয়াড়, অযান্ত্রিক যানবাহনের লাইসেন্স ফিস, নিবন্ধন কর, ব্যবসা, জন্ম নিবন্ধন ফি, নিকাহ রেজিস্ট্রেশন ফিসহ অন্যান্যখাত থেকে প্রাপ্ত আয় ৬ লক্ষ ৬ হাজার ৫শত টাকা। রাজস্ব ব্যায় খাত ৫ লক্ষ ৬৩ হাজার ১ শত টাকা। ব্যায় এর খাত হচ্ছে , চেয়ারম্যান ও সদস্যদের সন্মানী ভাতা, কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের বেতন ও ভাতা,বিদ্যুৎ বিল, কর আদায় বাবদ ব্যায়, মামলার ব্যায় , আসবাবপত্র/কম্পিউটার রক্ষনাবেক্ষন, জাতীয় দিবস উৎযাপন, বিভিন্ন ক্লাব / প্রতিষ্ঠানের আর্থিক অনুদান ইত্যাদি। উন্মুক্ত বাজে ঘোষনা কালে উপস্থিত ছিলেন, ইউপি সদস্য মো. সাইদুজ্জান (বাবু) , নকুল চন্দ্র সরকার, মো. জাকারিয়া সরকার জাকির, বৈশাকু মন্ডল , মো. শাহীন সরকার, মো. মানিক মন্ডল, শ্রী মদন কুমার সরকার, মো. জাকের হোসেন, মো. সাদেকুল ইসলাম মিন্টু। সংরক্ষিত মহিলা সদস্যদের মধ্যে ছিলেন, মোছা. মোরশেদা বেগম, মোছা. রওশন আরা খাতুন, মোছা. জেবুন আরা বেগম, ফুলবাড়ী থানা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মো. আফজাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক সাংবাদিক মো. আশরাফুল আলম। উন্মুক্ত বাজেট ঘোষনা কালে ইউনিয়ন পরিষদের সকল কর্মকর্তা কর্মচারী, ব্যবসায়ী মহল , রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ , স্থানীয় সুধিজন উপস্থিত ছিলেন।

  • বাংলাদেশ বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় জাতির পিতার নীতি ও আদর্শকে অনুসরণ করছে : রাষ্ট্রপতি

    রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, বাংলাদেশ বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় জাতির পিতার ‘সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারও সঙ্গে বৈরিতা নয়’ এ নীতি ও আদর্শকে অনুসরণ করছে।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জুলিও ক্যুরি শান্তিপদক প্রাপ্তির ৪৪তম বার্ষিকী উদ্যাপন উপলক্ষে আজ এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন। আগামীকাল ২৩ মে এ দিবস উদযাপিত হবে।‘জুলিও ক্যুরি বঙ্গবন্ধু সংসদ’ সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জুলিও ক্যুরি শান্তিপদক প্রাপ্তির ৪৪তম বার্ষিকী উদ্যাপন করছে বলে রাষ্ট্রপতি সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি এ আয়োজনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান ।তিনি বলেন, জাতির পিতা ছিলেন বিশ্বের মুক্তিকামী, নিপীড়িত, মেহনতি মানুষের অবিসংবাদিত নেতা। শান্তি, সাম্য, স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য তিনি আজীবন সংগ্রাম করেছেন। জেল, জুলুম, অত্যাচার, নির্যাতন সহ্য করেছেন। তাঁর অতুলনীয় সাংগঠনিক ক্ষমতা, রাষ্ট্রনায়কোচিত প্রজ্ঞা, মানবিক মূল্যবোধ, ঐন্দ্রজালিক ব্যক্তিত্ব বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতা সংগ্রামের লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ করে। তাঁর নির্দেশে বাঙালি জাতি মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে। স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যূদয় হয়।হামিদ বলেন, বঙ্গবন্ধু গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, ধর্মনিরপেক্ষতা ও জাতীয়তাবাদকে রাষ্ট্রের মূলনীতি হিসেবে ঘোষণা করেন। এর মধ্য দিয়ে তিনি বিশ্ব রাজনীতিতে একটি নতুন দর্শন প্রতিষ্ঠা করেন। যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশ পুনর্গঠনের পাশাপাশি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সংঘাতময় পরিস্থিতির অবসানে তিনি শান্তি প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেন। বিশ্বশান্তি পরিষদের কমিটি জাতির পিতার কর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৭৩ সালের ২৩ মে তাঁকে ‘জুলিও ক্যুরি’ শান্তিপদকে ভূষিত করে। এটি ছিল বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় তাঁর অবদানের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি। বাংলাদেশের জন্য প্রথম আন্তর্জাতিক সম্মান। জুলিও ক্যুরি বঙ্গবন্ধু সংসদের এই মহতী উদ্যোগ বঙ্গবন্ধুর জুলিও ক্যুরি শান্তিপদক অর্জনের জাতীয় ইতিহাসকে সংরক্ষণ ও গণমানুষের কাছে তুলে ধরতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।আবদুল হামিদ বলেন, জাতির পিতা ‘সকলের সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারও সঙ্গে বৈরিতা নয়’ এবং ‘সকল বিরোধের শান্তিপূর্ণ সমাধান’ কে পররাষ্ট্রনীতির মূলমন্ত্র হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন। প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে বিরোধ নিষ্পত্তিতে এ নীতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।তিনি বলেন, বাংলাদেশ আজ উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে রূপকল্প ২০২১ ও রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে ক্ষুধা, দারিদ্র্য ও নিরক্ষতামুক্ত এবং শান্তি ও সমৃদ্ধপূর্ণ জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলায় পরিণত করতে সক্ষম হবে।

  • সন্ত্রাসীদের অস্ত্র ও অর্থায়নের যোগান বন্ধে বৈশ্বিক উদ্যোগ গ্রহণে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কঠোরভাবে জঙ্গিবাদ মোকাবেলা নিশ্চিত করতে সন্ত্রাসীদের অস্ত্র ও অর্থায়নের যোগান বন্ধে বৈশ্বিক উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন।তিনি রোববার সৌদি আরবের রাজধানীতে কিং আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আরব-ইসলামিক-আমেরিকান সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘আমরা অবশ্যই সন্ত্রাসীদের হাতে অস্ত্র সরবরাহ ও অর্থের উৎস বন্ধ করতে চাই।’বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী একই সঙ্গে মুসলিম দেশগুলোর প্রতি মুসলিম উম্মাহর মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি বন্ধ ও শান্তির নীতি অবলম্বনের জন্যে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সংলাপে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘এটি সকলের জন্য বিজয়-বিজয় পরিস্থিতি তৈরি করবে।’অনুষ্ঠানে সৌদি আরবের বাদশা ও দু’টি বড় মসজিদের খাদেম সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সউদ, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং আরব ও অন্যান্য মুসলিম দেশসমূহের সরকার ও রাষ্ট্র প্রধানগণ বক্তব্য রাখেন।শেখ হাসিনা বলেন, সন্ত্রাস ও চরমপন্থা বিশ্বের শান্তির জন্য কেবল বড় হুমকিই নয়, এটি উন্নয়ন ও মানব সভ্যতার জন্যও।তিনি বলেন, ‘এটি যে কোন দেশ, ধর্ম ও জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য নয়।’প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সকল প্রকার চরমপন্থার বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণ করেছে এবং সর্বদাই যে কোন ধরনের একক বা সম্মিলিত সন্ত্রাস ও উৎসের বিরুদ্ধে অবস্থান নিচ্ছে।ইসলামকে সন্ত্রাসী কাজে ব্যবহার না করার আহ্বান জানিয়ে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘সন্ত্রাসীদের কোন ধর্ম, বিশ্বাস বা মৌলিক পরিচয় নেই, তারা যে কোন ধর্ম থেকে আসুক না কেন।’ইসলাম শান্তি ধর্ম উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসলাম কখনো সহিংসতা বা হত্যাকান্ড সমর্থন করে না এবং ‘আমরা যে কোন ধরনের চরমপন্থা ও সহিংসতায় ধর্মকে ব্যবহারের ক্ষেত্রে বিচার্য মনে করি না।’শেখ হাসিনা বলেন, ইরাক ও সিরিয়ার মতো যুদ্ধাবিধ্বস্ত দেশগুলো সন্ত্রাসী সংগঠনসমূহের অভিযান এবং সদস্য সংগ্রহের কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। তিনি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধোত্তর যুক্তরাষ্ট্রের মার্শাল পরিকল্পনা অনুসরণে মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশগুলোর জন্য একটি পুনর্গঠন ও উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণের আহ্বান জানান।শেখ হাসিনা আশঙ্কা করে বলেন, বিশ্বব্যাপী শরণার্থী সংকটের কারণে সন্ত্রাস ও সহিংসতা বেড়ে যেতে পারে। কারণ শরণার্থী সংকট সন্ত্রাস ও সহিংসতার একটি সম্ভাবনাময় উৎসে পরিণত হতে পারে।তিনি বলেন, সমুদ্র সৈকতে পড়ে থাকা তিন বছরের শিশু আয়লানের লাশের ছবি অথবা আলেপ্পোতে ওমরানের রক্তাক্ত মরদেহ প্রতিটি মানুষের হৃদয়কে নাড়া দিয়েছে। একজন মা হিসেবে আমাকেও এ ছবি কঠিনভাবে নাড়া দিয়েছে।শেখ হাসিনা বলেন, শরণার্থীদের বেদনা আমি বুঝি। কারণ আমিও শরণার্থী ছিলাম। এ প্রসঙ্গে তিনি ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় তাঁর পরিবারের বন্দিত্ব এবং ১৯৭৫ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের অধিকাংশ সদস্যের শাহাদাত বরণের পর প্রবাস জীবনের কথা উল্লেখ করেন।তিনি বলেন, ১৯৮১ সাল পর্যন্ত ৬ বছর আমি ও আমার ছোট বোন বিদেশে শরণার্থী ছিলাম। তাই শরণার্থীদের বেদনার বাস্তবতা আমি বুঝতে পারি।শেখ হাসিনা বলেন, ফিলিস্তিনী জনগণের দীর্ঘদিনের ভোগান্তি ও বঞ্চনা নতুন প্রজন্মের মনে অন্যায়-অবিচারের প্রতি ঘৃণার মনোভাবের সৃষ্টি হয়। তাই একটি ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় আমাদেরকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।বাংলাদেশে সন্ত্রাস দমনে বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদ দমনে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো প্রস্তুত এবং অস্ত্রসহ যথাযথ প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত। তারা দেশে গজিয়ে ওঠা সন্ত্রাসীদের কার্যকরভাবে মোকাবেলা করছে। তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনে তাঁর সরকার জনগণকে যুক্ত করে বহুমুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।তিনি বলেন, ‘আমরা কার্যকরভাবে দেশে গজিয়ে ওঠা উগ্রবাদীদের মোকাবেলা করছি। বেশ কয়েকটি সংগঠনকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এসব গোষ্ঠী কোন কোন মহল থেকে সমর্থন পেয়ে আসছিল। পাশাপাশি সরকার এদের বিরুদ্ধে গণসচেতনতা সৃষ্টিতে ব্যাপক প্রচারাভিযান চালাচ্ছে।’শেখ হাসিনা বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে একটি সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে তিনি ব্যক্তিগতভাবে সমাজের সকল শ্রেণী বিশেষ করে জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, ছাত্র এবং দেশব্যাপী মসজিদগুলোর ইমামদের সঙ্গে সভা ও মতবিনিময় করেছেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত আরব-ইসলামিক-আমেরিকান শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেয়ার সুযোগ পেয়ে তিনি আনন্দিত। তাঁকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য তিনি বাদশা সালমানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।শেখ হাসিনা রিয়াদে ইসলামিক কাউন্টার টেররিজম সেন্টার প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়ার জন্যও বাদশা সালমানকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হতে পেরে সন্তুষ্ট।

  • বাংলাদেশ সফরে ট্রাম্পের আগ্রহ প্রকাশ

     যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বাংলাদেশে সফরে আসার আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন। রোববার আরব ইসলামিক-আমেরিকান সামিটে (এআইএ) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি এ আগ্রহ ব্যক্ত করেন।ট্রাম্প বলেন, ‘হ্যাঁ আমি বাংলাদেশে আসব।’পররাষ্ট্র সচিব মো. শহিদুল হক সম্মেলনের পরে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে ট্রাম্পকে উদ্বৃত করে একথা বলেন।প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এবং উপ প্রেস সচিব মো. নজরুল ইসলাম ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন।পররাষ্ট্র সচিব বলেন, বাদশাহ আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের কক্ষে আরব ইসলামিক-আমেরিকান সামিট (এআইএ) শুরুর পূর্বে দুই নেতা এই কুশলাদি বিনিময় করেন।পররাষ্ট্র সচিব বলেন, সে সময়ই প্রধানমন্ত্রী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান। আমন্ত্রণ গ্রহণ করে ট্রাম্প তাঁর বাংলাদেশ সফরে আসার আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।এদিকে, বাদশাহ আব্দুল আজিজ আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আরব ইসলামিক-আমেরিকান সামিটের সাইড লাইনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাজিকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইমোমালি রহমনের সঙ্গে একটি দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেছেন।তাজিকিস্তানের প্রেসিডেন্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তাঁর সুবিধাজনক সময়ে তাজিকিস্তান ভ্রমণের আমন্ত্রণ জানান।পররাষ্ট্র সচিব বলেন, আমরা আশা করছি এ বছরই হয় তাজিকিস্তানের প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশ সফর করবেন, নাহলে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাজিকিস্তান সফরে যাবেন।তিনি বলেন, তাজিক প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশকে ব্যবসা জোরদার করার জন্য সম্ভবনাময় দেশ হিসেবেই দেখছে।এছাড়াও, এদিন সম্মেলনের সাইড লাইনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নজিব রাজাকের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন।পররাষ্ট্র সচিব বলেন, বহুকাল ধরেই বাংলাদেশ মালয়েশিয়ার সম্পর্ক অত্যন্ত বন্ধুভাবাপন্ন এবং দুই নেতা বৈঠকে বিভিন্ন দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করেন।

  • প্রধানমন্ত্রী মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.)-এর রওজা মুবারক জিয়ারত করেছেন

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বিকেলে সৌদি রাজকীয় নিয়ম অনুযায়ী পবিত্র নগরী মদিনায় মসজিদ-ই নববীতে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.)-এর রওজা মুবারক জিয়ারত করেছেন।এরআগে তিনি একই মসজিদে জোহরের নামাজ আদায় এবং দেশবাসীর মঙ্গল ও মুসলিম উম্মাহর অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাতে অংশ নেন।শেখ হাসিনা পরে মসজিদ-ই নববীতে আসরের নামাজ আদায় করবেন। পরে তিনি পবিত্র ওমরাহ পালনের জন্য বিমানযোগে মক্কা যাবেন।প্রধানমন্ত্রী প্রথমবারের মতো আরব ইসলামিক আমেরিকান সম্মেলনে যোগদান শেষে আজ সকালে রিয়াদ থেকে মদিনায় পৌঁছেন।সৌদি রাজকীয় এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ২৫ মিনিটে প্রিন্স মোহাম্মদ বিন আবদুল আজিজ বিমানবন্দরে অবতরণ করে। বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে সৌদি আরবের ডেপুটি প্রিন্স সৌদ বিন খালিদ আল ফয়সাল অভ্যর্থনা জানান।শেখ হাসিনা গত ২০ মে সৌদি বাদশা সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে আরব ইসলামিক আমেরিকান সম্মেলনে যোগ দিতে রিয়াদ পৌঁছেন। রোববার সৌদি রাজধানীতে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।৪ দিনের সফর শেষে প্রধানমন্ত্রী ২৪ মে ভোরে দেশে পৌঁছবেন।

  • আকিজ কম্পানীর মোড়ক পরিবর্তনে প্রচারনা ও কনসার্ট

    ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় আকিজ কম্পানীর শেখ সিগারেটের মোড়ক পরিবর্তন ও নতুন মোড়কে শেখ সিগারেট বাজারজাত করনের প্রচরনা হিসেবে এক কনসার্টের আয়োজন করা হয়। এ অনুষ্ঠানে সাদা-লাল-হলুদ এর সমন্বয়ে বিশেষভাবে তৈরী গেঞ্জি পরিহিত শতাধিক দোকানদারদের মাঝে মোড়ক পরিবর্তনের ঘোষনা দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে সংগীত শিল্পী কতৃক গান পরিবেশনের মাধ্যমে অতিথিদের মনোরঞ্জন করা হয়।  রিজিওনাল ম্যানেজার আকিজ কর্পোরেশন লিমিটেড স্বাক্ষরিত একটি পত্রে দেখা যায় ঢাকা টোব্যাকো ইন্ডাষ্ট্রীজ এর অর্থায়নে ২২ শে মে সালথা উপজেলা ও ২১ শে মে নগরকান্দা উপজেলা সন্মেলন এ অনুষ্ঠান করার প্রচারনা রয়েছে। স্থানীয় দোকানদার, সিগারেট বিক্রেতাদেরকে চলমান শেখ সিগারেট এর প্যাকেট জমা দিয়ে নতুন মোড়কের প্যাকেটজাত সিগারেট বিক্রির পরামর্শ দেওয়া হয়। ”বদলে যাচ্ছে বিশ্ব, এগিয়ে যাচ্ছে শেখ” এমন লেখা একটি ব্যানারে দেখা যায় ইংরেজী অক্ষরে লেখা আছে-রিটেইলার মিট এবং নীচে ২টি সিগারেটের ছবি। এ বিষয়ে প্রগ্রাম কো-অডিনেটর আনোয়ার হোসেন বলেন, সংবিধিদদ্ধ সতর্কীকরন সিগারেটের প্যাকেটে লেখা থাকবে। প্যাকেটের গায়ে অনেক ধরনের লেখা যেমন-ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, হৃদরোগের ঝঁকি বাড়ায়, ক্যানসার হয়,এসব প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন আমরা শুধুমাত্র প্রগ্রাম কো-অডিনেট করি। প্রচানার ক্ষেত্রে সরকার কতৃক অনুমোদন আছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তা রিজিওনাল ম্যানেজার বলতে পারবে। সর্বকালের শ্রেষ্ঠ পুরুষ , বাঙ্গালী জাতির মহান নায়ক, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও গণতন্ত্রের মানস কন্যা মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর ছবির নীচে আপনারা ব্যানার লাগিয়ে সিগারেটের পাবলিসিটি করছেন কেন, এমন প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে যান-প্রগ্রাম কো-অডিনেটর সহ সংশ্লিষ্টরা।

  • উন্নয়ন সম্ভাবনার প্রয়োজনে পার্বত্য অঞ্চলের ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তির আহ্বান রাষ্ট্রপতির

    রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ পার্বত্য অঞ্চলের উন্নয়ন সম্ভাবনা খুঁজে দেখতে এ এলাকার ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তিতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য চট্টগ্রাম হিল ট্রাক্ট ল্যান্ড ডিস্পুট রেজুলুশন কমিশনের (সিএইচটিএলডিআরসি) প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।আজ বিকেলে বঙ্গভবনে সিএইচটিএলজিআরসি’র চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ আনোয়ারুল হক রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রাম (সিএইচটি) অঞ্চলের ভবিষ্যৎ উন্নয়ন সম্ভাবনা উজ্জ্বল এবং এখানকার সার্বিক উন্নয়ন কার্যক্রম ত্বরান্বিত করতে আপনাদেরকে সকল সম্ভাবনার সদ্ব্যবহার করতে হবে।বৈঠক শেষে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদিন বাসসকে এ কথা জানান।পার্বত্য চট্টগ্রামের ব্যাপক উন্নয়নের সম্ভাবনা রয়েছে উল্লেখ করে আবদুল হামিদ বলেন, এ অঞ্চলের সম্ভাবনাগুলোকে কাজে লাগানো গেলে দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে।কমিশন পার্বত্য অঞ্চলের চলমান ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তিতে অবিলম্বে পদক্ষেপ নেবে এবং এ অঞ্চলের উন্নয়ন সম্ভাবনা কাজে লাগাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।বিচারপতি আনোয়ারুল হক রাষ্ট্রপতিকে কমিশনের সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করেন।কমিশন চেয়ারম্যান জানান, তারা পার্বত্য অঞ্চলের দীর্ঘ দিনের ভূমি বিরোধ নিরসনে সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছেন এবং সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।এ ব্যাপারে তিনি রাষ্ট্রপতির পরামর্শ ও সহযোগিতা কামনা করেন।

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top