• জননেতা রাশেদ খান মেনন-এর ৭৫তম জন্মদিন পালিত

    বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি জননেতা কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি’র আজ জন্মদিন। তাঁর জন্মদিন উপলক্ষে আজ সকালে তাঁর বাসভবনে ও পার্টি কার্যালয়ে বিভিন্ন সংগঠন ও সাধারণ মানুষ তাকে শুভেচ্ছা জানান। এসময় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশার নেতৃত্বে পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দ, জাসদের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান এমপির নেতৃত্বে জাসদ নেতৃবৃন্দ, ঢাকা মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টি, নারী মুক্তি সংসদ, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন, খেতমজুর ইউনিয়ন, জাতীয় কৃষক সমিতি, ছাত্রমৈত্রী, যুব লীগ, যুব মৈত্রী, গার্হস্থ্য নারী শ্রমিক ইউনিয়ন, সমাজ সেবা অধিদপ্তর, সমাজ সেবা অধিদপ্তর অফিসার্স কল্যাণ সমিতি, সোনার বাংলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন, রুপসী বাংলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়ন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দৃষ্টিহীন ছাত্র কল্যাণ সমিতি, সমাজ কল্যাণ পরিষদ, ফিজিও থেরাপী এসোসিয়েশন, কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর, এশিয়ান ওমেন এসোসিয়েশন, রমনা থানা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সংগঠন সমূহের নেতৃবৃন্দ ও বুদ্ধিজীবী এবং ঢাকা-৮ আসনের সর্বস্তরের জনসাধারণ তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। তারা কমরেড রাশেদ খান মেননের সুস্থ জীবন ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।  সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বাংলাদেশ যুব মৈত্রী ও ছাত্র মৈত্রীর যৌথ আয়োজনে দ্বিতীয় দফায় শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানের কর্মসূচি রয়েছে।

  • ফিলিস্তিন থেকে মার্কিন ইজরাইয়েল আধিপত্যবাদ ও দখলদারকে বিতাড়িত করতে হবে ... ফজলে হোসেন বাদশা এমপি

    ফিলিস্তিনী জনগণের উপর ইজরাইয়েল সৈন্যদের নির্বিচারে হত্যাযজ্ঞ ও নিপীড়ন-নির্যাতনের প্রতিবাদে আজ ১৫ মে মঙ্গলবার বিকেল ৪.৩০ মিনিটে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেন, ‘জেরুজালেম ফিলিস্তিনের রাজধানী ও তাদের আবাস ভূমি। তিনি জেরুজালেমে মার্কিন দুতাবাস স্থাপনের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনী জনগণের ন্যায় সংগত ও শান্তিপূর্ণ সমাবেশের উপর মার্কিন মদদপুষ্ট ইজরাইয়েলী সেনাবাহিনীর বর্বরোচিত হামলায় শিশু ও কিশোরসহ ৫৩ জন নিহত হওয়ায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়ে বলেন এটা বর্বর গণহত্যা। দেশে দেশে মার্কিন সা¤্রজ্যবাদের আধিপত্য ও দখলদারিত্ব নীতি সারা বিশ্বকে অশান্ত করে তুলেছে। তিনি আরো বলেন, আমাদের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ফিলিস্তিনের মহান নেতা ইয়াসির আরাফাত আমাদের পক্ষে দাঁড়িয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে এর ন্যায্যতা তুলে ধরেছিলেন।  তিনি আরো বলেন এভাবে সা¤্রাজ্যবাদী দেশগুলো ছোট ছোট দেশগুলো দখল করলে ও নির্যাতন চালালে পৃথিবী ভারসাম্যহীন হবে। ফিলিস্তিনে গণহত্যার দায়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে ইজরাইয়েল ও আমেরিকার বিচার হওয়া দরকার। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে জেরুজালেম থেকে মার্কিন দূতাবাস প্রত্যাহার ও দখলদার মুক্ত করার জোর দাবি জানান। সমাবেশ শেষে ইজরাইয়েলী পতাকা আগুন দিয়ে পোড়ানো হয়। ঢাকা মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি আবুল হোসাইনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর সভাপতি সাব্বাহ আলী খান কলিন্স। সভা পরিচালনা করেন ঢাকা মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক কিশোর রায়। উপস্থিত ছিলেন পলিটব্যুরো সদস্য কমরেড আনিসুর রহমান মল্লিক, কমরেড অধ্যাপক সুশান্ত দাস, কমরেড মাহমুদুল হাসান মানিক, কমরেড কামরূল আহসান, কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড মোস্তফা আলমগীর রতন, ও ঢাকা মহানগরের নেতৃবৃন্দ।

  • বৃটিশ জেল কোড পরিবর্তন করে কারাগারকে সংশোধনাগারে পরিণত করতে হবে ... ফজলে হোসেন বাদশা

    বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি ঢাকা মহানগরের উদ্যোগে ৬৮তম খাপড়া ওয়ার্ড দিবসের আলোচনা সভা ৩০ তোপখানা রোডস্থ পার্টির কার্যালয়ের নিচ তলায় শহীদ বীরদের স্মরণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এমপি, পলিটব্যুরো সদস্য কমরেড বিমল বিশ্বাস, কমরেড অধ্যাপক সুশান্ত দাস, কমরেড মাহমুদুল হাসান মানিক, কমরেড হাজেরা সুলতানা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক কমরেড মেজবাহ কামাল, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড মোস্তফা আলমগীর রতন। সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর সভাপতি কমরেড আবুল হোসাইন। সভা পরিচালনা করেন ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক কমরেড কিশোর রায়।  প্রধান অতিথির বক্তৃতায় কমরেড বাদশা বলেন, বৃটিশ জেল কোড পরিবর্তন করে কারাগারকে সংশোধনাগারে পরিণত করতে হবে। কারাগার কোন নির্যাতনের জায়গা না। তিনি বলেন, ১৯৫০ সালের ২৪ এপ্রিল রাজশাহী জেলের অভ্যন্তরে খাপড়া ওয়ার্ডে ইতিহাসের জঘন্যতম হত্যাকা- সংঘটিত হয়। নিরস্ত্র ও অসহায় কমিউনিস্ট রাজবন্দিদের উপর পাকিস্তানী শাসকদের আদেশ ও বৃটিশ জেল সুপার বিলের নির্দেশে নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করা হয়। এতে ৭ জন শহীদ হন ও ৩৯ জন মারাত্মকভাবে আহত হন। যারা সারাজীবন সেই ক্ষত নিয়ে বেঁচেছিলেন।বক্তারা আরও বলেন, খাপড়া ওয়ার্ড শহীদদের আত্মদান আমাদের চেতনাকে শানিত করেছিল। অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক ও সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনকে এগিয়ে নিতে পারলে শহীদদের প্রতি যথাযথ মর্যাদা দেখানো হবে।

  • কাজ-খাদ্য-চিকিৎসা-শিক্ষা-বাসস্থানসহ গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিতে বাসদ (মার্কসবাদী)’র রাজপথে অবস্থান কর্মসূচী

    কাজ-খাদ্য-চিকিৎসা-শিক্ষা-বাসস্থানসহ গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার দাবিতে বাসদ (মার্কসবাদী) রংপুর ও রাজশাহী বিভাগীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে ২৪ এপ্রিল বাসদ (মার্কসবাদী) দিনাজপুর জেলা শাখার উদ্যোগে দিনাজপুর সরকারি কলেজ মোড়ে ঘন্টাব্যাপী রাজপথে অবস্থান কর্মসূচী পালিত হয়। বাসদ (মার্কসবাদী) দিনাজপুর জেলা শাখার সংগঠক গোবিন্দ রায়ের পরিচালনায় অবস্থান কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন বাসদ (মার্কসবাদী) দিনাজপুর জেলা শাখার সদস্য এ.এস.এম মনিরুজ্জামান মনির, খানসামা উপজেলা শাখার সদস্য সাজ্জাদ চৌধুরী আপেল, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট দিনাজপুর জেলা শাখার সদস্য অজয় রায় সহ আরও অনেকে। বক্তারা বলেন, জনপ্রতিনিধিত্বহীন মহাজোট সরকার দেশে ফ্যাসিবাদী শাসনের দিকে এগোচ্ছে। তারা কম গনতন্ত্র, বেশী উন্নয়নের শ্লোগান দিচ্ছে। সরকার এবং তাদের ঘনিষ্ঠরা জনগনের টাকা লুট করে টাকার পাহাড় তৈরী করছে। তারা জনগনের কাছে নামে-বেনামে নানারকম কর আরোপ করছে। জনগনের চোখে লোক দেখানো উন্নয়নেরনামে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করছে। দেশে মানুষের জীবনের কোন নিরাপত্তা নেই। বক্তারা বলেন, যে কৃষকেরা ফসল উৎপাদন করে দেশের অর্থনীতিকে সচল রাখে সেই কৃষকেরা ফসলের ন্যায্যমূল্য পায় না। অথচ মধ্যস্বত্তভোগীরা কৃষকের উৎপাদিত ফসল উচ্চমূল্যে বিক্রি করে হাজার হাজার কোটি টাকার মুনাফা করছে। দফায়-দফায় বাড়ছে গ্যাস-বিদ্যুতের দাম। বক্তারা আরো বলেন, শিক্ষাক্ষেত্রে নৈরাজ্য বিরাজ করছে। শিক্ষাকে দিনে দিনে বেসরকারিকরন বানিজ্যিকিকরণ করা হচ্ছে। ফলে কৃষক-খেটে খাওয়া মানুষের সন্তানেরা শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। গাইড বই ও কোচিং সেন্টারের মাধ্যমে হাজার হাজার কোটি টাকার বানিজ্য করছে। দেশে দিনে দিনে শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা বাড়ছে। সরকার তাদের কাজ দিতে পারছে না ফলে তারা বিদেশে পাড়ি দিতে গিয়ে প্রতারনার শিকার হচ্ছে। দেশে গার্মেন্টস শ্রমিকদের দুদর্শার শেষ নেই। তাদের কাজ করার উপযুক্ত পরিবেশ নেই। নেই তাদের উপযুক্ত কোন বেতন ভাতা। ফলে তাদের সন্তানরা শিক্ষা-চিকিৎসাসহ সকল অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। জনগনের নীরবতা শাসক এবং শোষকদের শোষন লুটপাটের ক্ষমতা আরও বাড়িয়ে দেয়। তাই আন্দোলনের মাধ্যমে এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলে নিজেদের অধিকর আদায়ে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য বক্তারা সকলের প্রতি আহ্বান জনান এবং অবস্থান কর্মসূচী থেকে ১০ দফা দাবী উত্থাপন করেন। 

  • দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য আগামী নির্বাচন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ : মেনন

    সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য আগামী নির্বাচন অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। তিনি শুক্রবার, বিকেলে কক্সবাজার জেলার চকোরিয়া বিজয় মঞ্চে ওয়ার্কার্স পার্টির কক্সবাজার জেলা শাখার বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। মেনন বলেন, ‘আর কয়েকমাস পর আমাদের যে জাতীয় নির্বাচন হতে যাচ্ছে তা দেশের ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বিষয়। দেশের উন্নয়নের চাকা সচল থাকবে নাকি চাকা ডুবে যাবে তা নির্ভর করবে এই নির্বাচনে জনগণের প্রত্যক্ষ রায়ের ওপর। দেশের মানুষকে এই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে আগামী দিনে তারা কেমন বাংলাদেশ দেখতে চায় ।’ সমাজকল্যাণ মন্ত্রী বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের নানা দিকের সমালোচনা করেন। তিনি তৎকালীন সময়কে দেশব্যাপী জঙ্গিবাদের উত্থান, অব্যাবস্থাপনা, নৈরাজ্য ও ভীতিকর সময় হিসেবে অভিহিত করেন। মেনন বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময় রাজধানীর এক হাওয়া ভবনের ইশারায় গোটা দেশের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রিত হতো। হাওয়া ভবনের ইশারায় দেশব্যাপী জঙ্গিবাদের ব্যাপক উত্থানের পাশাপাশি ঘুষ, দুর্নীতির নিয়ন্ত্রণ করতো বেগম জিয়ার বড় ছেলে তারেক রহমান। সুতরাং দেশকে যদি আবারো সেই বিভীষিকাময় সংকটে ফেলতে না চান তাহলে আপনাদের সকলকেই ঐক্যবদ্ধভাবে বর্তমান সরকারকে বেছে নিতে হবে।’ বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কক্সবাজার জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

  • মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মায়ের মৃত্যুতে এলডিপি’র শোক

    মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মা ফাতেমা আমিনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরীক দল লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি- এলডিপি’র সভাপতি ড. কর্নেল (অবঃ) অলি আহমদ বীরবিক্রম, মহাসচিব ড.রেদোয়ান আহমেদ এক বিবৃতিতে বলেন, রতœাগর্ভা মা হিসেবে ফাতেমা আমিন সকলের কাছে অত্যন্ত শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন। নেতৃবৃন্দ তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকা সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে মারা যান তিনি। ফুসফুস, কিডনিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যার কারণে বেশ কিছুদিন ধরে ফাতিমা আমিন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। ফাতিমা আমিনের স্বামী প্রয়াত মির্জা রুহুল আমিন আশির দশকে এরশাদ সরকারের মন্ত্রী ছিলেন। এছাড়া তিনি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমানের শাশুড়ি।

  • কারাবন্দী খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় সব করবে সরকার : তথ্যমন্ত্রী

    তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘কারাবন্দী খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য শেখ হাসিনার সরকার যা-যা করার তাই করবে।’ শনিবার সন্ধ্যায় বিবিসি বাংলা’র এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি আরো বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকার সামরিক শাসনের সরকার নয়, গণতান্ত্রিক সরকার কারাবন্দীর অধিকারে বিশ্বাস করে এবং শ্রদ্ধা রাখে।’ মন্ত্রী এসময় তার কারাগার জীবনের দু:সহ স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘পঁচাত্তরের পরে জেনারেল জিয়ার সামরিক সরকারের কালে কারাবন্দীদের অধিকারবঞ্চিত করে রাখা হয়েছিল, নির্যাতন করা হয়েছিল। আমি পাঁচ বছর কারাগারে ছিলাম, বাইরের ডাক্তার তো দূরের কথা, জেলের ডাক্তারও দেখতে আসেননি।’ ‘কারা কতৃপক্ষ, প্রশাসন ও চিকিৎসকেরা কারাবন্দীর স্বাস্থ্য সুরক্ষার সিদ্ধান্তে অটল এবং সে সিদ্ধান্তই সরকার কার্যকর করছে’ উল্লেখ করে ইনু বলেন, ‘খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসকেরাও সরকারি চিকিৎসকদের সঙ্গে তার স্বাস্থ্যপরীক্ষার কাজে নিয়োজিত।’

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top