• ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ই-কমার্সের ওপর কর্মশালা অনুষ্ঠিত

    ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ড্যাফোডিল স্টুডেন্টস অ্যাফেয়ার্স (ডিএসএ) এবং জার্মান সংগঠন ফ্রেডরিক ন্যুম্যান ফাউন্ডেশন (এফএনএফ) এর যৌথ উদ্যোগে ‘ই-কমার্স : ইস্যু রিলেটিং টু একসেস’ শীর্ষক এক কর্মশালা বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম-৫২তে আজ বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্মশালায় প্রধান বক্তা ছিলেন ই-কমার্স বিশেষজ্ঞ ও বিল্ডিং টেকনোলজি অ্যান্ড আইডিয়া লিমিটেডের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ শাহ সাইফুল্লাহ আল জাকেরিন; একই সঙ্গে তিনি আমিকিনি ডট কম নামের একটি ই-কমার্স সাইটের ডিজিটাল মার্কেটিং কর্মকর্তা। কর্মশালায় আরও বক্তব্য রাখেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার হামিদুল হক খান, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মোহাম্মদ মাসুম ইকবাল, স্টুডেন্টস অ্যাফেয়ার্সের পরিচালক সৈয়দ মিজানুর রহমান রাজু ও ফ্রেডরিক ন্যুম্যান ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম এক্সিকিউটিভ মো. ওমর মোস্তাফিজ।কর্মশালার প্রধান বক্তা শাহ সাইফুল্লাহ আল জাকেরিন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ই-কর্মাস ব্যবসা বাংলাদেশে নতুন। তবে খুব দ্রুত এর বিস্তার ঘটছে। তরুণ উদ্যোক্তারা ই-কমার্সের দিকে ঝুঁকছেন। বাংলাদেশের ক্রেতারাও দিন দিন ই-কমার্সে অভ্যস্ত হয়ে উঠছেন। ই-কমার্সের এই বিকাশমান সময়ে যদি সঠিক লক্ষ্য ও পরিকল্পনা ঠিক রেখে অগ্রসর হওয়া যায় তবে তরুণ উদ্যোক্তারা খুব সহজেই ই-কমার্স ব্যবসায় সফল হতে পারবেন। এ সময় তিনি ই-কমার্স ও এফ কমার্সের মধ্যে পার্থক্য তুলে ধরেন। শাহ সাইফুল্লাহ আল জাকেরিন বলেন, এফ কমার্সের মাধ্যমে ব্যবসা শুরু করা ভালো, তবে দীর্ঘ মেয়াদে ব্যবসা করতে চাইলে ই-কমার্সের মাধ্যমেই করা উচিত। তিনি আরো বলেন, অফ লাইনে ব্যবসা করতে চাইলে পণ্য মজুদ রাখার জন্য অনেক বড় গুদাম ঘরের (স্টোর রুম) প্রয়োজন হয়। কিন্তু অনলাইনে পণ্য মজুদ করতে ইট-কাঠের গুদাম ঘরের প্রয়োজন পড়ে না। শুধু ই-কমার্স সাইটের সার্ভারের জায়গা বাড়ালেই চলে। এটাই ই-কমার্স ব্যবসার সবচেয়ে বড় শক্তি ও সুবিধা। এ সময় তিনি দারাজ ডটকমের উদাহরণ টেনে বলেন, দারাজে আড়াই লাখ পণ্য রয়েছে।অনুষ্ঠানে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার হামিদুল হক খান বলেন, দিন যত যাচ্ছে মানুষ তত প্রযুক্তিনির্ভর হয়ে উঠছে। অনেক মানুষ এখন ঘরে বসে কেনাকাটা করেন। মার্কেটে গিয়ে ভীড়ের মধ্যে ঠেলাঠেলি করে পণ্য কেনার ঝক্কি এবং সময়ের অপব্যবহার এখন আর কেউ করতে চান না। ফলে দিন দিন ই-কমার্স জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। এসময় তিনি ফ্রেডরিক ন্যুমান ফাউন্ডেশনকে ধন্যবাদ জানান এমন একটি কর্মশালার সহযোগী হওয়ার জন্য।

  • পোষ্ট-গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা কোর্স চালু

    বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) এর অনুমোদনের ভিত্তিতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে তথ্য বিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধীনে পোষ্ট-গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা কোর্স চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে তথ্য বিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিষয়ে ডিপ্লোমা প্রোগ্রামের ক্ষেত্রে যে শুন্যতা বিরাজ করেছিল তা কিছুটা হলেও লাঘব হবে। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি তাদের পরিচালিত অন্যান্য প্রোগ্রামের মতোই এ প্রোগ্রামেও শিক্ষার যথাযথ মান বজায় রেখে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করবে। এক্ষেত্রে অভিজ্ঞ শিক্ষক মন্ডলীর পাশাপাশি তারুণ্যের সমন্বয় ঘটিয়েছে। যারা এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পোষ্ট-গ্রাজুয়েট ডিপ্লোমা কোর্স সম্পন্ন করবে তারা তথ্য বিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনার সাথে যুক্ত আধুনিক প্রযুক্তিগুলোর বিষয়ে হাতে কলমে শিক্ষা অর্জন করতে পারবে। আগামী ৩০ এপ্রলি ২০১৭ থেকে গ্রীষ্মকালীন সেমিষ্টারে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হবে। ভর্তি সম্পর্কিত তথ্যের জন্য ০১৭১৩৪৯৩০৫০, ০১৮১২২৮৩৭৫২ এই নাম্বারে যোগাযোগ অথবা সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি অফিস ১০২, শুক্রাবাদ, মিরপুর রোড, ধানমন্ডি, ঢাকা এই ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য জানানো যাচ্ছে। 

  • ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক এই ত্রিমাত্রিক সম্পর্কের বন্ধনে ঊজ্জ্বল ভবিষ্যত গড়ে তোলা সম্ভব

    ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক এই ত্রিমাত্রিক সম্পর্কের দৃঢ় বন্ধনের মাধ্যমেই প্রতিটি শিক্ষার্থীর ঊজ্জ্বল ভবিষ্যত গড়ে তোলা সম্ভব - ডিআইইউ চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান ...একমাত্র ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক এই ত্রি-মাত্রিক সম্পর্কের শক্তিশালী ও দৃঢ় বন্ধনের মাধ্যমেই উন্নত জীবন ও ক্যারিয়ার গড়ে তোলা সম্ভব এবং সে কারণেই শিক্ষার্থীদের নৈতিক ও মানবিক মূল্যবোধ উন্নয়নে এ ত্রি-মাত্রিক সম্পর্ককে আরো দৃঢ় করার আহ্বান জানিয়েছেন ড্যাফোডিল গ্রুপের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান। তিনি আরো বলেন, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজের মূল লক্ষ্য হচ্ছে আধূনিক শিক্ষায় শিক্ষিত, তথ্যপ্রযুক্তি জ্ঞানে দক্ষ এবং মানব সম্পদ তৈরী করা এবং সে লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। তিনি আজ ড্যাফোডিল টাওয়ারে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজ আয়োজিত ‘হাই স্কুল থেকে কলেজে পদার্পণ: চ্যালেঞ্জ ও করণীয়সমূহ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি শিক্ষার্থীদের মধ্যে নৈতিকতা ও মানবিক মূল্যবোধের মত বিষয়গুলো জাগ্রত করতে এবং কো- কারিকুলার ও এক্সট্রা কারিকুলার কর্মসূচীর আয়োজন বাড়াতে এবং শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি আজ ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজে আয়োজিত ‘হাই স্কুল থেকে কলেজে পদার্পণ: চ্যালেঞ্জ ও করণীয়সমূহ’ শীর্ষক সেমিনারে এসব কথা বলেন। ধানমন্ডির ড্যাফোডিল টাওয়ারে আয়োজিত এ সেমিনারে বিশেষ অতিথি ও মূখ্য আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. খালেদ হোসাইন। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল কলেজের অধ্যক্ষ জামশেদুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পরিচালক স্টুডেন্ট এফেয়ার্সের সঞ্চালনায় সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন উপাধ্যক্ষ মোহাম্মদ এনামুল হক, সিনিয়র শিক্ষক মমিনুল হক। সেমিনারে বিশেষ অতিথি ও মূখ্য আলোচক প্রফেসর ড. খালেদ হোসাইন বলেন, কোন শিশুকেই অবহেলা করা উচিত নয়, কারন সময়ের আবর্তে সেও হয়ে উঠতে পারে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ মানুষ। তিনি বলেন, পারিবারিক শিক্ষাই একটি মানুষের জন্য সেরা শিক্ষা।তিনি বলেন, পারিবারিকভাবে একজন সন্তানকে সঠিক পথে পরিচালিত করতে বাবা পাইলটের ভূমিকা এবং মা নেভিগেটরের ভূমিকা পালন করে থাকেন। তাই অভিভাবকদের খেয়াল রাখতে হবে যেন তাদের সন্তানরা বিপথে চলে না যায়। অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তিনি শিক্ষক ও অভিভাবকদের শিক্ষার্থীদের আরও বেশী সচেতন ও বন্ধুসুলভ হওয়ার পরামর্শ দেন। অনুষ্ঠানে রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন স্কুলের বিপুল সংখ্যক প্রধান শিক্ষক, সহকারি প্রধান শিক্ষক ও সিনিয়র শিক্ষকগন অংশগ্রহণ করে।

  • ১৮ বছরেও এমপিও ভুক্ত হয়নি পার্বতীপুরের মধ্যপাড়া কলেজ

    দিনাজপুরের খনিজ শিল্পঞ্চল এলাকায় অবস্থিত মধ্যপাড়া কলেজটি শুধু মাত্র একাডেমিক স্বীকৃতিকে সম্বল করে দীর্ঘ ১৮ বছর ধরে এমপিও ভুক্তির জন্য অপেক্ষার প্রহর গুনছে কলেজের শিক্ষক কর্মচারী সহ ২৫ জন স্টাফ। কলেজ স্টাফের সকলেই ১৮ বছর ধরে বেতন ভাতা ছাড়াই মানবেতর জীবন যাপন করছে। ১৯৯৯ইং সালে পার্বতীপুর উপজেলার ১০নং হরিরামপুর ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট এলাকায় মধ্যপাড়া কঠিন শিলা খনি প্রকল্প সংলগ্ন কাল নদীর পাড়ে রংপুর-ফুলবাড়ি মহাসড়কের পার্শ্বে মনোরম পরিবেশে কলেজটি প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে আসেন কয়েকজন শিক্ষানুরাগি মরহুম আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ মন্ডল ও আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ গং। মধ্যপাড়া কলেজের অনুকুলে ২একর ৪২ শতক জমি দান করে প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু করে পরবর্তীতে এলাকাবাসী এবং শিক্ষক কর্মচারীদের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় প্রতিষ্ঠানটি স্ব-গৌরবে শিক্ষা বিস্তারে এগিয়ে চলে। ০১/০৭/২০০২ইং সালে পাঠ দানের অনুমতি মিলেছে এবং কলেজটির স্বীকৃতি মিলেছে ০১/০৭/২০০৬ইং সালে। কলেজের ২৫জন স্টাফ স্বেচ্ছা শ্রমের মাধ্যমে অদ্যবধী কার্যক্রম চালিয়ে আসলেও নেই তাদের বেতন ভাতার ব্যবস্থা। অধ্যক্ষ ওবায়দুর রহমান এই প্রতিবেদককে জানায় পাঠ দানের অনুমতি ও স্বীকৃতিকে সম্বল করে আমরা আশাবাদি হয়ে প্রতিক্ষার প্রহর গুনছি এমপিও ভুক্তির। কিন্তু বিভিন্ন প্রক্রিয়াগত জটিলতার নিরসন হওয়ার পরেও দীর্ঘ ১৮ বছর থেকে বেতন ভাতা প্রাপ্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত থাকার কারণে আর্থিক দৈন্যতার নির্মম কষাঘাতে আমাদেরকে মানবেতর জীবন যাপন করতে হচ্ছে। ২০০৪ সাল হতে এই কলেজের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দানের অনুমতি পাওয়ার পর হতে পরীক্ষার রেজাল্ট অত্যান্ত সন্তোষ জনক। স্থানীয় সংসদ সদস্য মাননীয় প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা মন্ত্রী মহোদয় কলেজটিকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এমপিও ভুক্তির প্রতি¯্রুতি দিয়েছিল কিন্তু তা আজো বাস্তবায়িত হয়নি। এলাকার শিক্ষানুরাগী প্রধান শিক্ষক খন্দকার হাবিবুর রহমান আক্ষেপ করে বলেন, কলেজ পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি পর্যায়ক্রমে ক্ষমতাসীন দলের নেতারা থাকার পরেও মাননীয় মন্ত্রী এলাকার কলেজ এমপিও ভুক্ত না হওয়া অত্যান্ত লজ্জাকর ও দুঃখ জনক। মধ্যপাড়া কলেজ হতে নূন্যতম ১০ কিঃ মিঃ এর মধ্যে অন্যকোন কলেজ না থাকায় এই কলেজের শিক্ষার্থী সংখ্যা ব্যপক। প্রবীন শিক্ষক আবেদ আলী বলেন, দল মত নির্বিশেষে এলাকার স্বার্থে সমন্বিত ভাবে কলেজটিকে এমপিও ভুক্তির জন্য প্রয়োজনে গণ আন্দোলন প্রয়োজন। মধ্যপাড়া বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নুরনবী মন্ডল সহ  সচেতন মহলের জোর দাবি শিক্ষার অনুকুল পরিবেশ তৈরীতে সহায়ক মধ্যপাড়া কলেজকে দ্রুত এমপিও ভুক্তি করা হোক। এডিপিইও’র কারিশমায় সর্বমহলে সমলোচনার ঝড়পার্বতীপুরে দু’শিক্ষকের তৃতীয় দফা তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত প্রশাসনিক বদলী নিকটতম বিদ্যালয়ে মোঃ আফজাল হোসেন, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি॥ দীর্ঘ ৮মাস ধরে ৩ দফায় বিভাগীয় তদন্তে পার্বতীপুর উপজেলার মৌলভীর ডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আলোচিত অভিযুক্ত দু’সহকারী শিক্ষকের  বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সমূহ প্রমাণিত হওয়ার পরেও অবশেষে তাদেরকে নিকটবর্তী বিদ্যালয়ে প্রশাসনিক বদলী করায় সর্বমহলে সমলোচনার ঝড় উঠেছে। তদন্ত কমিটি ৩ দফায় একাধিক তদন্তে ওই বিদ্যালয় সহকারী কে দোষি চিহ্নিত করে আইনানুগ বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ সহ প্রতিবেদন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার দিনাজপুরের নিকট দাখিল করার পর গত ১৬ মার্চ/১৭ইং স্মারক নং- জেপ্রাশিঅ/দিনাজ/শিঃবদলি/৮০৩ ও স্মারক নং- উশিঅ/পার্বতী/দিনাজ/বদলী২০১৭/৬৫/১০ তাং ১৯/৩/১৭ইং আদেশ মূলে অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষিকা মোছাঃ রেবেকা খানমকে একই ওয়াডের আনন্দ বাজার সপ্রাবি এবং সহ শিক্ষক হাফিজুর রহমান কে নিকটবর্তী দলাইকোঠা সবুজ সপ্রা বিদ্যালয়ে প্রশাসনিক বদলির নির্দেশ প্রদান করা হয়। প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনায়ন কারী শিক্ষিকার বিরুদ্ধে কোন আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ না করা এমন কি তিরিষ্কার পত্র না দেওয়ায় সচেতন মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বিভাগীয় মামলায় দোষি চিহ্নিত হওয়ার পর অভিযুক্ত শিক্ষককে কেবল মাত্র প্রশাসনিক বদলির সুযোগ থাকে। প্রশাসনিক বদলির অন্যতম শর্ত কর্মরত ইউনিয়নের বাইরে আন্তঃ উপজেলার দূরবর্তী বিদ্যালয়ে বদলি তৎ সঙ্গে শাস্তি হিসাবে সাময়িক বরখাস্ত সহ ইনক্রিমেন্ট কর্তন, সেলেক শন গ্রেড ডিমোশন। অভিযোগ উঠেছে এডিপিও সমেশ চন্দ্র মজুমদার ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রাথমিক কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন কালিন সময় ওই শিক্ষক দু’জনকে বাঁচাতে মোটা অর্থ বাণিজ্যের ইঙ্গিত নিয়ে বেশকিছু আঞ্চলিক ও জাতিয় দৈনিক পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছিল। তারই ধারাবাহিকতায় সমস্ত তদন্ত কর্মকর্তা তদন্ত প্রতিবেদনের সুষ্পষ্ট সুপারিশ সমূহকে পাশ কাটিয়ে নবাগত ডিপিও এস এম তৌফিকুজ্জামান এর নিকট বিষয়টি ভিন্ন ভাবে উপস্থাপনের মাধ্যমে চিহ্নিত দোষি শিক্ষকদের শাস্তির পরিবর্তে নিজ এলাকায় বদলি করা হয়েছে। জানাগেছে উপজেলার মৌলভীর ডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী ওই দু’শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষক দায়িত্বহীনতা, সেচ্ছাচারিতা ও উৎশৃংখলা সহ এসেম্বিলি চলাকালীন ও জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন কালে অফিসে বসে খোশ গল্পে মেতে থাকার অভিযোগে শিক্ষা অফিসে দাখিল করেন। প্রেক্ষিতে ৩০/৮/১৬ইং পার্বতীপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার আখতারুল ইসলাম দু’জন সহকারী শিক্ষা অফিসারকে নিয়ে বিদ্যালয়ে এসে দিন ব্যাপি তদন্তকালে অভিযোগ সমূহের যথার্থতা প্রমাণিত হয়। এর মাত্র ১ সপ্তাহের ব্যবধানে আবারো ডিপিইও দিনাজপুরের নির্দেশে ৭ সেপ্টেম্বর/১৬ পার্বতীপুর উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান দু’শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ তদন্ত করেন এবং সত্যতা পান। তদন্ত কর্মকর্তা দ্বয় অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিভাগীয় মামলা দায়ের এর যৌথ সুপারিশ সহ স্মারক নং- ৯৯৭ তাং- ২১/৯/১৬ইং দিনাজপুর জেলা শিক্ষা কর্মকর্তার নিকট দাখিল করেন। প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে  ডিপিও জেপ্রাশিঅ/দিনাজ/বিমা/২০১৬ তাং- ৩/১০/১৬ইং অভিযুক্ত শিক্ষক দ্বয়ের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারী (শৃংখলা ও আপিল) বিধিমালা ১৯৮৫ মোতাবেক বিভাগীয় মামলার অভিযোগ নামায় স্পষ্ট বলা হয় অভিযুক্ত শিক্ষক গণ নিয়োমিত যথা সময়ে বিদ্যালয়ে আগমন ও প্রস্থান না করায় শিক্ষার্থীদের শিখনে ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়েছে। তাই সরকারি কর্মচারী (শৃংখলা ও আপিল) বিধিমালা ১৯৮৫ এর বিধি ৩ (বি) মতে অসাদাচরনের সামিল ও শাস্তি যোগ্য অপরাধ করিয়াছেন মর্মে একই ধারার ৪ (৩) (ডি) মোতাবেক চাকুরী হতে বরখাস্ত প্রদান সহ মামলা রজু করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। এ ছাড়া মোছাঃ রেবেকা খানম সহকারী শিক্ষক প্রধান শিক্ষক বিরুদ্ধে মিথ্যা ভিত্তিহীন উদ্দেশ্য প্রনিত স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ সাময়িত তদন্তে প্রমানিত হয়। আতœপক্ষ শুনানিতে অভিযুক্তদের বক্তব্য খারিজ হয়েগেলে ৭/১২/১৬ইং  তারিখে স্মারক নং জেপ্রাশি/দিনাজ/বিঃমাঃ/৩৫৬৩/১২ বিরামপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান কে প্রধান করে হাকিমপুর ও দিনাজপুর সদর সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার কে সদস্য করে ৩ সদস্যের কমিটি গঠন করেন। তদন্ত কমিটি ১০ জানুয়ারী/১৭ সরেজমিন তদন্ত করে পূর্বের তদন্তের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে অভিযুক্ত শিক্ষক দু’জনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুরারিশ করেন। ৩ দফায় অভিযোগ প্রমানিত হওয়ার পরেও তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি যা সকলের নিকট প্রশ্ন বিদ্ধ। এ ব্যাপারে নবাগত জেলা প্রথমিক শিক্ষা অফিসার এস এম তৌফিকুজ্জামান জানান, ভারপ্রাপ্ত ডিপিও থাকাকালীন সমেশ চন্দ্র মজুমদার বিষয়টি দেখভাল করেছে। কোন বিদ্যালয়ের অবস্থান কোথায় তা আমার জানা নেই এ কারণেই হয়তোবা প্রশাসনিক বদলি তাদের নিজস্ব ওয়াডেই হয়েছে। ভারপ্রাপ্ত ডিপিও থাকা কালীন সমেশ চন্দ্রের সঙ্গে তাদের কোন দফারফা হয়েছিল কি না তা আমার জানা নেই। প্রাথমিক শিক্ষা রংপুর বিভাগ রংপুর এর উপ-পরিচালক মাহবুব এলাহি জানান প্রশাসনিক বদলি অভিযুক্ত শিক্ষকদের চাহিদা মত বিদ্যালয়ে দেওয়ার সুযোগ নেই আমার লিখিত নির্দেশনা কপিটি সংগ্রহ করলেই বিষয়টি বুঝতে পারবেন এ ব্যাপারে অনিয়ম হয়ে থাকলে আবারো ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মোটা আর্থিক লেনদের মাধ্যমে অভিযুক্ত শিক্ষকদের সুবিধা দেওয়া হয়েছে এমন প্রশ্নের জবাবে বর্তমান এডিপিও সমেশ চন্দ্র মজুমদার (তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত ডিপিও) অভিযোগ নিয়ে মন্তব্য না করে বলেন বিষয়টি বর্তমান ডিপিও স্যার ভাল জানেন। বিদ্যালয়ের সাবেক পিটিএ সভাপতি আতাউর রহমান ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, অভিযুক্ত দু’শিক্ষককে প্রশাসনিক বদলির নামে পুরুষ্কৃত করা হয়েছে, দুঃচরিত্রবান ঐ শিক্ষকদের যথাযথ শাস্তি প্রদান না করায় এলাকাবাসি হতবাক। সংশ্লিষ্ট প্রধান শিক্ষক খন্দকার হাবিবুর রহমান জানান শিক্ষিকা মুচলেকা দিয়ে ক্ষমা প্রার্থনার মাধ্যমেই যদি শাস্তি শেষ হয়ে যায় বলার কিছু নেই তবে ঐ শিক্ষিকা উত্তোক্তকরণ অভিযোগ প্রমাণে সক্ষম হলে শিক্ষা বিভাগ এতদিন আমার জন্য কি করত? সচেতন এলাকাবাসির অভিমত দাখিলকৃত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন সমূহ পূনরায় বিশ্লেষন করে অপরাধীদের শাস্তি প্রদান করলেই তৃণমূল পর্যায় এমন অসস্তিকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে না। পার্বতীপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার আখতারুল ইসলাম এবং সহকারী শিক্ষা অফিসার ও তদন্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর জানান চাকুরী বিধি পরিপন্থি স্বেচ্ছা চারীতা মূলক কাজে লিপ্ত থাকায় এবং প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মিথ্যা ভিত্তিহীন অভিযোগকারী দোষি শিক্ষকদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উদ্ধোতন কর্তৃপক্ষের নিকট সুপারিশ দাখিল করা হয়েছিল সেখানে আমাদের করার কিছু নেই। সর্বশেষ তদন্ত কমিটির প্রধান ও বিরামপুর উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান জানান তৃতীয় দফা তদন্তেও ওই দু’শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগের যথার্থতা পাওয়া গিয়েছে মর্মে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে।

  • ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস’ উদযাপন

    বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস-২০১৭’ পালন করেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির জনস্বাস্থ্য বিভাগ। দিবসটি উপলক্ষে গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের জনস্বাস্থ্য বিভাগ গণসচেতনতা বাড়াতে র‌্যালি ও সেমিনার করেছে। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক প্রবর্তিত এবারের স্বাস্থ্য দিবসের প্রতিপাদ্য ‘হতাশা: চলো কথা বলি’ লেখা সম্বলিত ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা র‌্যালি নিয়ে মিরপুর সড়ক থেকে শুরু করে ধানম-ি এলাকার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এসময় র‌্যালিতে অংশ গ্রহণ করেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির জনস্বাস্থ্য বিভাগের অধ্যাপক ড. এস এম কেরামত আলী, বিভাগীয় প্রধান ড. মো. শাহজাহান, সহযোগী অধ্যাপক ড. সালামত খন্দকার, সেন্টার ফর মেডিকেল আল্ট্রা সাউন্ড অ্যান্ড ড্রপলার (সিএমইউডি) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. জাহিদুর রশিদ সুমন এবং দুই শতাধিক দেশী-বিদেশি শিক্ষার্থী।দিবসটি উপলক্ষ্যে আজ শনিবার (৮ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম ৭১-এ ‘হতাশা: চলো কথা বলি’ শীর্ষক  সেমিনারের আয়োজন করে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির জনস্বাস্থ্য বিভাগ। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপ উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহবুব উল হক মজুমদারের সভাপতিত্ত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রিসার্চ, ট্রেনিং অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টের প্রেসিডেন্ট ও রূপালী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ড. আহমেদ আল কবির এবং প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. শাহ মো. কেরামত আলী। সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন বিশ^বিদ্যালয়ের জনস্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান ড. মো. শাহজাহান, সহযোগী অধ্যাপক ড. সালামত খন্দকার ও সেন্টার ফর মেডিকেল আল্ট্রা সাউন্ড অ্যান্ড ডপলার (সিএমইউডি) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. জাহিদুর রশিদ সুমন।

  • প্রোগ্রামিং কনটেস্টের বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ে ৬ষ্ঠ অবস্থানে বাংলাদেশের

    যুক্তরাষ্ট্রের উরি অনলাইন জাজ কর্তৃক প্রকাশিত বিশ্বের মর্যাদাপূর্ণ প্রফেশনাল কম্পিউটার প্রোগ্রাামিং সমাধান সূচকে সারা পৃথিবীর মধ্যে ষষ্ঠ স্থান অধিকার করেছে বাংলাদেশের ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। আর এর মধ্য দিয়ে বিশ্বদরবারে আরো একবার উজ্জ্বল হলো বাংলাদেশের মুখ। সম্প্রতি  প্রকাশিত  উরি অনলাইন জাজ ওয়েবসাইটে ‘প্রোগ্রামিং কনটেস্ট র‌্যাংকিং’ প্রকাশ করা হয়। এতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ১১ হাজার ৬৫ জন শিক্ষার্থী ও প্রোগ্রাম সমাধানকারীরা ৩৯ হাজার ৮১৮টি সমস্যা সমাধান করার মাধ্যমে বিশ্বতালিকায় সেরা দশের মধ্যে উঠে এসেছে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিকে। এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ থেকে অংশ নেওয়া অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে ৪৭তম অবস্থানে এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) রয়েছে ১০২তম অবস্থানে।   উরি অনলাইন জাজ ওয়েবসাইট থেকে আরো জানা যায়, এই তালিকায় প্রথম থেকে পঞ্চম পর্যন্ত পাঁচটি শীর্ষ অবস্থান দখলে রেখেছে ব্রাজিলের পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয়। প্রথম অবস্থানে রয়েছে ইউনিভার্সিটি ফেডারেল দ্য ইতাজুবা, দ্বিতীয় ইন্সটিটিউট ন্যাশনাল দ্য টেলিকমিউনিকেশন, তৃতীয় ইউনিভার্সিটি ফেডারেল দ্য ইউবারল্যানডিয়া, চতুর্থ ফেডারেল ইন্সটিটিউট অব এডুকেশন, সায়েন্স অ্যন্ড টেকনোলজি এবং পঞ্চম অবস্থানে রযেছে ইউনিভার্সিটি দ্য রিজিওনাল ইন্টিগ্রাডা। ড্যাফোডিল ইন্টারন্যশনাল ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের  প্রধান সৈয়দ আক্তার হোসেন  এ সাল্যে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকেই ড্যাফোডিল ইন্টারন্যশনাল ইউনিভার্সিটি প্রতিটি সেমিস্টারেই  আন্তঃবিভাগীয় প্রোগ্রামিং কনটেস্ট ও টেক-অফ প্রতিযোগিতার পাশাপাশি জাতীয় ও আন্তঃ বিশ^বিদ্যালয়  প্রোগ্রামিং প্রতিযোগীতা, এসিএম আইসিপিসি নিয়মিতভাবে আয়োজন এবং প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণ করে থাকে।  এসব প্রতিযোগিতায় অংশগ্রগণ করার মাধ্যমে ও নিয়মিত চার্চও ফলে শিক্ষার্থীরা নিজেদের  প্রোগ্রামিং দক্ষতা বাড়াতে সক্ষম হয়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মনে করে, শিক্ষার্থীদের এই দক্ষতা প্রতিফলিত হয়েছে উরি অনলাইন জাজ প্রোগ্রামিং র‌্যাংকিংয়ে। শিক্ষার্থীদের অব্যাহত অংশগ্রহণে এই তালিকায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অচিরেই প্রথম স্থান অধিকার করবে বলে মনে করেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

  • ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ‘ফরিদা জোহা রিডিং স্কলারশিপ’ চালু

    তরুণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে বই পড়ার চর্চা বাড়াতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ‘ফরিদা জোহা রিডিং স্কলারশিপ ’ চালু করা হয়েছে। আজ ড্যাফোডিল বিজনেস ইনকিউবেটর ভবনের সেমিনার কক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে এ বৃত্তি ঘোষনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য  অধ্যাপক ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম  এর পিতা ড. আহমদ শামসুল ইসলাম। তিনি তার প্রিয় বোন ‘ফরিদা জোহা’র স্মরণে এ বৃত্তি ঘোষনা করেন। এ বিষয়ে বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সাথে এ বৃত্তির চুক্তিপত্র স্বাক্ষরিত হয়।  চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বৃত্তি ফান্ডের পক্ষে স্বাক্ষর করে অধ্যাপক আহমদ শামসুল ইসলাম এবং ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পক্ষে স্বাক্ষর করেন রেজিস্ট্রার প্রসেফসর ইঞ্জিনিয়ার এ.কে.এম. ফজলুল হক। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, উপ-উপাচার্য ড. এস.এম মাহবুব উল হক মজুমদার, ট্রেজারার হামিদুল হক খান, সাবেক উপাচার্য ও এমিরিটাস প্রফেসর  ড. আমিনুল ইসলাম, এমিরিটাস প্রফেসর ড. এম লুৎফর রহমান, ব্যবসায় ও অর্থনীতি অনুষদের ডিন প্রফেসর রফিকুল ইসলাম, সমাজবিজ্ঞান ও মানবিক অনুষদের ডিন অধ্যাপক এ.এম.এম. হামিদুর রহমান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর ড. গোলাম মওলা চৌধুরী, লাইব্রেরিয়ান ড. মিলন খান, অর্থ ও হিসাব বিভাগের পরিচালক মমিনুল হক মজুমদার ও ইনোভেশন অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের প্রকল্প পরিচালক আবু তাহের খান।চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অধ্যাপক আহমদ শামসুল ইসলাম বলেন, বৃত্তিটি আমার প্রয়াত বোন ফরিদা জোহার নামে চালু  করেছি। কারণ আমাদের শিক্ষিত হওয়ার পেছনে তার বিরাট অবদান রয়েছে, তার অবদানের স্বীকৃতি ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশে তার স্মৃতির প্রতি সম্মান প্রদর্শনপূর্বক এ বৃত্তি চালু করেছি।  এখনকার ছেলেমেয়েদের মধ্যে পাঠাভ্যাস আশঙ্কাজনকভাবে কমে গেছে। এই বৃত্তি তাদেরকে বইপাঠে উদ্বুদ্ধ করবে বলে আমি মনে করি। বক্তব্য শেষে অধ্যাপক আহমদ শামসুল ইসলাম বৃত্তি তহবিলের জন্য পাঁচ লাখ টাকার অনুদানের চেক তুলে দেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার হামিদুল হক খানের হাতে। ক্যপশনঃ ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ‘ফরিদা জোহা রিডিং স্কলারশিপ ’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বৃত্তি ফান্ডের চুক্তি বিনিময় করছেন  প্রয়াত ফরিদা জোহা’র ভাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. আহমদ শামসুল ইসলাম এবং ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার প্রসেফসর ইঞ্জিনিয়ার এ.কে.এম. ফজলুল হক। এসময় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ইউসুফ মাহবুবুল ইসলাম, উপ-উপাচার্য ড. এস.এম মাহবুব উল হক মজুমদার, ট্রেজারার হামিদুল হক খান, সাবেক উপাচার্য ও এমিরিটাস প্রফেসর  ড. আমিনুল ইসলাম, এমিরিটাস প্রফেসর ড. এম লুৎফর রহমানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

  • Daffodil International University celebrated 47th Independence and National Day

    The students of Daffodil International University (DIU) celebrated 47th Independence and National Day 2017 with great enthusiasm at its campus. A discussion meeting titled “Attainment of Independence through Liberation War” was held on Auditorium 71 of the university at main campus. Mr. Hamidul Haque Khan, Treasurer, DIU was the chief guest at the discussion meeting. Presided over by Prof. Dr. A M M Hamidur Rahman, Dean, Faculty of Humanities and Social Science, the discussion meeting was addressed by Mr. Mohsin Reza, Associate Professor and Head, Department of English, Mr. Sheikh Mohammad Shafiul Islam, Associate Professor, Dr. Toufiq E Elahi, Assistant Professor  of Department of Journalism and Mass Communication and Mr. Mohaimen Faruq, Adjunct Faculty of Daffodil International University.       Addressing as the chief guest Hamidul Haque Khan said, we got independent through war of Freedom in 1971, we got political independent, but we didn’t get freedom till today. We couldn’t free our democracy and couldn’t free ourselves from fanatical politics, communalism still fighting here, democracy is not in a good condition, He also said, after 46 years of Independence, we could not achieve the target of our desired expectations and he urged the young generation of the country to work united to regain the spirit of Liberation war and dreamed golden Bangladesh.      Caption: Mr. Hamidul Haque Khan, Treasurer of Daffodil International University is addressing as the chief guest at the discussion program on Independence Day-2017 held at Daffodil International University Auditorium71.

  • প্রধান শিক্ষকের বিদায়ী সংবধনা অনুষ্ঠিত

    বুধবার বগুড়া সদরের গোকুল বালক সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লায়লা নাজনীন এর বিদায়ী সংবর্ধনা স্কুল হল রুমে অনুষ্ঠিত হয়। অত্র স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মাওঃ আলহাজ্ব আব্দুর রউফ এর সভাপতিত্বে শিক্ষার্থীদরে উদ্যের্শে  বক্তব্য রাখেন গোকুল বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহিম, ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি ও বগুড়া সদর উপজেলা কৃষকদলের সাধারন সম্পাদক এবিএমএস মিলন, ইউপি সদস্য এমদাদুল হক দুলাল, সাজেদুল ইসলাম সুজন, হাজেরা বেগম, রুমি বেগম, ইঞ্জি: আহম্মেদ সোহেল এছাড়াও অত্র স্কুলের সকল শিক্ষক/ শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে নবাগত প্রধান শিক্ষক রেহেনা ইয়াছমিনকে ফুলেল শুভেচ্ছা দেওয়া হয়।

  • মোঃ খলিলুর রহমান বার্ধক্য জনিত কারণে কার্ডিও কেয়ার হাসপাতালে ইন্তেকাল

    ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ঊর্ধ্বতন সহকারি পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) নাজিম উদ্দিন সরকার ও প্রশাসনিক কর্মকর্তা  মোহাম্মদ করিম সরকারের বাবা এবং সোনালী ব্যাংকের  সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার (অবসরপ্রাপ্ত) মোঃ খলিলুর রহমান বার্ধক্য জনিত কারণে আজ রবিবার মার্চ ০৫, ২০১৭ তারিখ রাত ৩টায় ঢাকায় কার্ডিও কেয়ার হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে---------------- রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮। বাদ আসর নিজ বাসভবনে ( সোনালী কুটির, ষোল ঘর, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে) জানাজা শেষে চাঁদপুরে পৌর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তিনি পাঁচ পুত্র, এক কন্যা ও নাতী-নাতনীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী ও শুভানুধ্যায়ী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ট্রাস্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ সবুর খান, উপাচার্য প্রফেসর ড. ইউসুফ এম ইসলাম, উপ- উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম মাহাবুবুল হক মজুমদার,  ট্রেজারার হামিদুল হক খান , রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল হক, পরিচালক (প্রশাসন)  মোহাম্মদ ইমরান হোসেন ও ড্যাফোডিল পরিবারের সর্বস্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ গভীর শোক এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ।

  • স্কুল কলেজ ম্যানেজমেন্ট সফটওয়ার এর উদ্বোধন করেন সংসদ উপনেতা

    মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানের অংশ হিসাবে ফরিদপুরের সালথা উপজেলাধীন সকল মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ্যাডুমেন ৪.৩ (স্কুল কলেজ ম্যানেজমেন্ট সফটওয়ার) এর শুভ উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের মাননীয় সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি। বুধবার বিকালে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে এ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ মোবাশ্বের হাসানের সভাপতিত্বে এসময় সম্মানিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সংসদ উপনেতার জ্যেষ্টপুত্র, নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আয়মন আকবার চৌধুরী বাবলু, উপনেতার মেজপুত্র সাজিদ আকবার চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মো. মনিরুজ্জামান, উপজেলা চেয়ারম্যা মো. ওয়াহিদুজ্জামান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক উজ্জামান ফকির মিয়া, এডুমেন সফটওয়ার এর কর্মকর্তাবৃন্দ প্রমূখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কৃষ্ণ চন্দ্র চক্রবর্তী। বক্তারা এসময় বলেন, বাংলাদেশের সর্ব প্রথম এই উপজেলায় এডুমেন সফটওয়ারের  উদ্বোধন করা হলো। উপজেলার সকল মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কলেজ ও মাদ্রাসায় এ  সফটওয়ারের কার্যক্রম চালু হয়েছে। সালথা বাংলাদেশের প্রথম উপজেলা।

  • ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া আজ শুক্রবার একুশে বই মেলায়

    জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া আজ শুক্রবার একুশে বই মেলায় কবি শাহ্ মো. আহসান মঞ্জুর রচিত ‘হে নবীন’ , অমিতাভ দাশ হিমুন রচিত ‘পরম্পরার চোখ’ এবং মোঃ জাকারিয়া রহমান জামিল রচিত ‘ অনুভুতির খেলা’ শীর্ষক কবিতার বইসহ বেশ কয়েকটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। এসময় ডেপুটি স্পিকার বলেন, লেখনির মধ্য দিয়ে একজন মানুষের সৃজনশীল মননের বিকাশ ঘটে। কবিতা মানুষের মনকে পরিচ্ছন্ন আনন্দ দেয়। এসময় তিনি বর্তমান প্রজন্মকে আরও বেশি বই পড়ার উপর গুরুত্বারোপ করেন।তিনি বলেন, একজন বইপ্রেমি মানুষ কখোনোই মাদকাসক্ত হয়না, জঙ্গি বা সন্ত্রাসবাদকে প্রশ্রয় দেয়না। এমনকি কোন ধরণের কুসংস্কারের বেড়াজালে নিজেকে আড়ষ্ঠ করেনা। এসময় তিনি বর্তমান প্রজন্মকে বইমুখী করতে   সুস্থ ও মুক্তচিন্তার বিকশে সহায়ক  বই আরও বেশি করে লেখার জন্য লেখকদের প্রতি আহবান জানান।

  • দক্ষতাবিহীন সনদভিত্তিক শিক্ষা জাতির জন্য বোঝা : শিক্ষামন্ত্রী

    শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শিক্ষা হবে দক্ষতামুখী। দক্ষতাবিহীন সনদভিত্তিক শিক্ষা ব্যক্তি, পরিবার, সমাজ ও জাতির জন্য বোঝা তৈরি করে। যুগোপযোগী কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা-প্রশিক্ষণই জাতির অর্থনৈতিক মুক্তির পথ। কারিগরিই হবে শিক্ষার মূলধারা। সরকার পর্যায়ক্রমে শিক্ষাকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নেবে। আজ শনিবার আইডিইবি মিলনায়তনে স্কিলস এ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (স্টেপ) আয়োজিত ‘জাতীয় স্কিলস কম্পিটিশন- ২০১৬’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষা বাংলাদেশের অগ্রাধিকার খাত, কারিগরি শিক্ষা হলো অগ্রাধিকারের অগ্রাধিকার। সরকার ইতিমধ্যে কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষার্থী ভর্তির হার ১ শতাংশ থেকে ১৪ শতাংশের উপরে উন্নীত করেছে। এই হার আগামী ২০২০ সালের মধ্যে ২০ শতাংশ এবং ২০৩০ সালের মধ্যে ৩০ শতাংশ নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে জোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। চূড়ান্ত পর্যায়ে এ হারকে ৬৫ শতাংশের ঊর্ধ্বে তুলতে হবে। এখাতের অগ্রগতি ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে সরকার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ করেছে। কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বৃদ্ধি করা, কোর্স-কারিকুলাম যুগোপযোগী করা, যন্ত্রপাতি-ল্যাব-ওয়ার্কশপ বাড়ানো, নতুন নতুন প্রকল্প গ্রহণ করাসহ নানা উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। ’ নাহিদ আরো বলেন, ‘বর্তমানে বাংলাদেশ ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ট সুবিধার মধ্যে আছে। ১০০ বছরের অধিক সময় পর পর কোন দেশ এ সুবিধা পায়। বর্তমানে বাংলাদেশে ১৫ থেকে ৬৪ বছর বয়সী কর্মক্ষম মানুষের সংখ্যা ১০ কোটি ৫৬ লক্ষ। শতকরা হারে তা ৬৬ শতাংশ। ২০৩০ সালে এই হার ৭০ শতাংশে উন্নীত হবে। এ এক বিশাল সুযোগ। এ সুযোগকে কাজে লাগাতে হবে। নতুন প্রজন্মকে আধুনিক কারিগরি প্রযুক্তিতে দক্ষ করে তুলতে হবে। তা না হলে এরাই হয়ে উঠবে দেশের জন্য বড় বোঝা। একই সঙ্গে তিনি কারিগরি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদেরকে অনতিবিলম্বে প্রয়োজনীয় কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের নির্দেশ দেন।   তিনি বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য অর্জনে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

  • পাবলিক পরীক্ষায় ২ জন বহিষ্কার ১ জনের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

    রংপুরে পাবলিক পরীক্ষায় ২ জন বহিষ্কার ১ জনের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পাবলিক পরীক্ষায় ১৯৮০ এর ১১ ধারা লঙ্ঘন করায় ভ্রাম্যমান আদালতে শুকুরের হাট কেন্দ্রে উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা মনোয়ারা বেগমের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা করেন গত সোমবার দুপুর ১২টায় মিঠাপুকুর ইউএনও মামুন-অর-রশিদ। ইউএনও প্রতিনিধি ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম শুকুরের হাট কেন্দ্রে ঐ শিক্ষিকা মনোয়ারা বেগমের মোবাইলে পরীক্ষার প্রশ্ন ও উত্তরপত্র হাতে-নাতে ধরে ফেলেন। উল্লেখ্য গত ১৬ই ফেব্রুয়ারি/৯৭ মিঠাপকুর ও শঠিবাড়ী এস.এস.সি পরীক্ষার কেন্দ্রে মোবাইলে পরীক্ষার প্রশ্ন ও উত্তরপত্র দেখে ইউএনও মামুন-অর-রশিদ ১শ ৬২টি মোবাইল জব্দ করেন। ওই দিন সন্ধ্যায় ইউপি চেয়ারম্যান, সাংবাদিক ও গণ্যমান্য ব্যক্তির উপস্থিতিতে ১শ ৫৯টি মোবাইল আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়। ৩টি মোবাইল প্রমাণ স্বরুপ তার কাছে জমা রাখেন। পাবলিক পরীক্ষার ১৯৮০ সালের ১১ ধারা লঙ্ঘন করায় নানকর দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক ইয়াকুব আলী যাহার স্মারক নং-২৫৫, মাহিয়ারপুর উচ্চ বিদ্যালয়েল সহকারি শিক্ষক শফিকুল ইসলাম যাহার স্মারক নং-২৫৪, তারিখ ১৬/০২/১৭। শিক্ষকদ্বয়ের ৫ বছরের জন্য সকল পাবলিক পরীক্ষা থেকে বিরত রাখার জন্য কেন্দ্রে সচিবকে নির্দেশ দেন। বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য কেন্দ্র সচিবগণ তদ্ববীর চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ ওঠেছে। শিক্ষামন্ত্রনালয়ের উদ্বর্তন কর্তৃপক্ষের খতিয়ে দেখার জন্য এলাকার অভীজ্ঞ মহল অনুরোধ জানিয়েছেন।

  • এডুকেশন ট্রাস্টের প্রতিনিধি দলের মতবিনিময়

    দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস কার্যালয়ে লন্ডন এডুকেশন ট্রাস্টের প্রতিনিধি দল উপজেলা মাধ্যমিক অফিসারের সাথে শিক্ষা ব্যবস্থার মান উন্নয়নে মতবিনিময় করেন। গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস কার্যালয়ে ইংল্যান্ডের নিউ লন্ডন এডুকেশন ট্রাস্ট (এনএলইটি) এর চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ফিল ডেভিস, ট্রাস্টের সদস্য ও প্রধান শিক্ষক আলমগীর কবির চৌধুরী, ইংরেজি শিক্ষিকা এমাম্যাক ডেড, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আব্দুস সাত্তার এর সাথে শিক্ষার মান উন্নয়নে আইসিটি, টিচার মেইনটেন্স, টিচার ট্রেনিং ম্যানেজমেন্ট এডুকেশন, প্রতিবন্ধী বাচ্চাদের ও ঝরে পড়া বাচ্চাদের শিক্ষার মান উন্নয়ন বিষয়ে মতবিনিময় করেন। এ সময়, লন্ডন এডুকেশন ট্রাস্টের চিফ এক্সিকিউটিভ সাংবাদিকদের জানান, তারা তাদের ট্রাস্ট থেকে শিক্ষার মান উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশে এসেছে। বাংলাদেশের জয়পুরহাট জেলা ও দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলাতে তাদের উক্ত বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করবেন। এজন্য তারা ফুলবাড়ী উপজেলায় প্রাথমিক জরিপ কাজ শুরু করেছেন আগামী মার্চ মাস থেকে তারা তাদের কার্যক্রম পুরো শুরু করবেন। এ সময় মতবিনিময় সভায় তাদের কার্যক্রম বিষয় নিয়ে শিক্ষকদের সাথে প্রতিনিধি দল কথা বলেন। মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক ও ফুলবাড়ী থানা প্রেস ক্লাবের সাংবাদিক বৃন্দ।   

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top