• যারা স্ন্যাপচ্যাটকে অনুসরণ করতে পারে

    অবশেষে ওয়ালস্ট্রিটে নাম লেখাতে তৈরি ছবি ম্যাসেজিং সার্ভিস স্ন্যাপচ্যাট৷ প্রতিষ্ঠানটির প্রাথমিক গণপ্রস্তাব বা আইপিও সফলতার মুখ দেখলে আরো অনেক ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান স্টক মার্কেটে নাম লেখাতে পারে৷

  • ডাটা সেন্টার নিয়ে বেসিসের সেমিনার অনুষ্ঠিত

    বেসিসের মিলনায়তনে ডাটা সেন্টারের বর্তমান অবস্থা, এর নিরাপত্তাসহ সামগ্রিক বিষয়ে নিয়ে ‘গ্লোবাল আইটি ট্রেন্ডস : হাউ উইল দে এফেক্ট ইওর ডাটা সেন্টার স্ট্রাটেজি’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেসিস ও ইকাডেমি আয়োজিত এই সেমিনারে বেসিস সদস্য কোম্পানির প্রতিনিধিসহ আগ্রহী অর্ধশতাধিক লোক অংশ নেন।সেমিনারে বেসিসের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান। আলোচনা করেন এপিআই সিঙ্গাপুরের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ওট্টো ডি রো এবং ইকাডেমির পরিচালক মনির আহমেদ।অনুষ্ঠানে বেসিসের সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান বলেন, সময়ের চাহিদায় স্থানীয় পর্যায়ে ডাটা সেন্টার স্থাপন আবশ্যক হয়ে পড়েছে। ব্যক্তিগত থেকে শুরু করে প্রাতিষ্ঠানিক এমনকি সরকারি গুরুত্বপূর্ণ ডাটা সংরক্ষণের ক্ষেত্রে সঠিক নিয়মে ডাটা সেন্টার স্থাপন অত্যন্ত জরুরী। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ইন্টারনেট অব থিংকস, অগমেন্টেড/ভার্চুয়াল রিয়েলিটির জনপ্রিয়তায় প্রতিষ্ঠানগুলোকে আইটি ও ডাটা সেন্টার স্ট্রাটেজিতে গুরুত্ব দিতে হবে। বেসিসের পক্ষ থেকে এর সদস্যসহ বাংলাদেশি আইটি কোম্পানির ডাটা সেন্টার সম্পর্কিত পরিকল্পনা গ্রহণে কাজ করা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় এই সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে। আগামীতে এ ধরণের সেমিনারের ধারাবাহিকতা থাকবে বলে জানান বেসিস সহ-সভাপতি।অনুষ্ঠানের মূল আলোচক এপিআই সিঙ্গাপুরের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ওট্টো ডি রো ইন্টার‌্যাক্টিভ প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে বর্তমান ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের নতুন ব্যবসায় ও সোশ্যাল মিডিয়ার পরিবর্তন ও এর ভূমিকা নিয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন। একইসাথে গ্রাহকদের চাহিদানুযায়ী নিরাপদ ডাটা সেন্টার ব্যবস্থাপনা নিয়ে করণীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন। তিনি জানান, নতুন ব্যবসায় ও তথ্যপ্রযুক্তি দক্ষতার দ্রুতবর্ধমান চাহিদানুসারে আগামী কয়েক বছরে ডাটা সেন্টার ইন্ডাস্ট্রি অন্তত দুই ডিজিট বড় হবে।ইকাডেমির পরিচালক মনির আহমেদ ডাটা সেন্টার দক্ষতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, আমাদের দেশে ডাটা সেন্টার প্রযুক্তিতে দক্ষ জনবলের অভাব রয়েছে। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষা নতুন এই প্রযুক্তির সাথে সমন্বিত নয়। অনেকেই ভেন্ডর সার্টিফিকেশন প্রশিক্ষণ নিলেও ডাটা সেন্টার ফ্যাসিলিটি ডিজাইন, অপারেশন, ক্যাপাসিটিতে প্রশিক্ষণের শিক্ষার্থী খুবই কম। কিন্তু সময়ের চাহিদায় এ বিষয়ে যথাযথ প্রশিক্ষণ প্রয়োজন। বেসিসের সকল সদস্য কোম্পানি ও প্রফেশনালদের জন্য ইপিআই এর বাংলাদেশি পার্টনার ইকাডেমিতে সকল প্রশিক্ষণে ২০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হবে বলেও ঘোষনা দেন তিনি।

  • সৌর বিদ্যুৎ চালিত ড্রোন

    সৌর বিদ্যুৎ চালিত বিমানের পর এবার এলো ড্রোন। বিজ্ঞানীরা এই প্রথম সৌর বিদ্যুৎ চালিত ড্রোন উদ্ভাবন করতে সক্ষম হয়েছেন। এই ড্রোনটি সম্পূর্ণ সৌর বিদ্যুৎ চালিত।  ড্রোনটি তৈরি করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব মিনিসোটার একদল গবেষক। ড্রোনটি দেখতে অনেকটা বিমানের মত। এতে বিমানের মত লম্বা পাখা আছে। এই পাখা ভাঁজ করা যায়। ভাঁজ খুললে এটি লম্বায় ছয় ফুট।  ড্রোনটিতে ক্যামেরা সংযোজন করা আছে। এর উদ্ভাবকেরা জানিয়েছেন, ড্রোনটি দিয়ে শস্যক্ষেতের অবস্থা পর্যালোচনা করা হবে।  এর আগে সৌরবিদ্যুৎ চালিত বিমান সোলার ইমপালস উদ্ভাবন করা হয়। এর পরীক্ষামূলক উড়ান সম্পন্ন করার পর এটি পুরো পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করতে সমর্থ হয়েছে।

  • শুরু হচ্ছে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭

    বাংলাদেশের তৈরি সফটওয়্যার দেশি বিদেশিদের কাছে পরিচিত করতে বুধবার ঢাকায় শুরু হচ্ছে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭। শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১ থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি এই প্রদর্শনী সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে বলে শনিবার বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। ঢাকার কারওয়ান বাজারে বেসিস কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে বেসিস সভাপতি মোস্তফা জব্বার জানান, দেশি-বিদেশি সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান, আন্তর্জাতিক আইটি সংগঠন, দেশি সফটওয়্যার কোম্পানিসহ শতাধিক প্রতিষ্ঠান তাদের তথ্যপ্রযুক্তি পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করবে একাদশতম সফটএক্সপোতে। “পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহীদের চাকরির সুযোগ দিতে থাকছে ‘এন্টারপ্রেনারশিপ অ্যান্ড ক্যারিয়ার ইন আইটি’ শীর্ষক আয়োজন।” প্রোগ্রামিং, ডিজাইনিং, মার্কেটিং, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ও অ্যাকাউন্টিংসহ বিভিন্ন বিষয়ে আগ্রহীরা তাদের সিভি এ মেলায় আসা দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানের স্টলে জমা দেওয়ার সুযোগ পাবেন। বেসিসের পরিচালক সৈয়দ আলমাস কবীর বলেন, সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবায় রপ্তানি বাড়াতে এবারের মেলায় নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্কসহ বিভিন্ন দেশের অন্তত ১০টি কোম্পানির সঙ্গে দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর আন্তর্জাতিক ‘বিজনেস টু বিজনেস ম্যাচম্যাকিং সেশনের’ আয়োজন করা হয়েছে। তিনি জানান, তথ্যপ্রযুক্তির বিভিন্ন দিক নিয়ে ২০টি সেমিনার, ১০টি টেকনিক্যাল সেশন এবং প্রথম ও চতুর্থ শ্রেণির শিশুদের নিয়ে বিশেষ কোডিং প্রোগ্রাম থাকছে এবারের মেলায়। কোডিং প্রোগ্রাম শিশুদের প্রযুক্তি ব্যবহারে আগ্রহী করে তুলবে- এমন আশা প্রকাশ করে মোস্তফা জব্বার বলেন, “বাংলাদেশের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে সবচেয়ে বেশি রূপান্তর ঘটেছে সফটওয়্যার খাতে। নতুন প্রজন্ম তীব্র গতিতে এই খাতে এগিয়ে আসছে।” এবারের প্রদর্শনীতে ছোট-বড় মিলিয়ে ৪২টি প্যাভেলিয়ন ও ৪৯টি স্টল থাকছে বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়। অন‌্যদের মধ‌্যে মাইক্রোসফট বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবীর, সিটি ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোহেল আর কে হুসেইন, বেসিসের সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান, পরিচালক উত্তম কুমার পাল সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। আগ্রহী যে কেউ প্রদর্শনীস্থলে গিয়ে কিংবা অনলাইনের নিবন্ধন করে (http://softexpo.com.bd/visitor/registration) বিনামূল্যে সফটএক্সপোতে অংশ নিতে পারবেন।

  • ডুয়েটে মোবাইল গেইম কর্মশালা অনুষ্ঠিত

    মোবাইল গেইমিংয়ে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃড় করতে ও এই খাতে দেশের যুবসমাজকে দক্ষ জনশক্তি হিসাবে গড়ে তুলতে জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল গেইম উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। আয়োজনের অংশ হিসেবে শনিবার (২১ জানুয়ারি ২০১৭) ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ডুয়েট), গাজীপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছে মোবাইল গেম আইডিয়া জেনারেশন বিষয়ক কর্মশালা। কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল গেইম উন্নয়ন কর্মসূচির পরিচালক ও তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্ট মোঃ নবীর উদ্দীন, কর্মসূচির উপ-পরিচালক ও  ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ভাইস-চ্যান্সেলর ড. মোহাম্মদ আলাউদ্দিন ও অ্যাপনোমেট্রি লিমিটেডের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ঢাকা চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের পরিচালক রিয়াদ হোসেন। সভাপতিত্ব করেন ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইইই অনুষদের ডিন ও সিএসই বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মোঃ নাসিম আখতার। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ আয়োজিত এই কর্মশালা পরিচালনা করে অ্যাপনোমেট্রি লিমিটেড। কর্মশালায় মোবাইল আইডিয়া জেনারেশনের বিভিন্ন পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। জুরি বোর্ডের মাধ্যমে বাছাইকৃত ৩০ জন শিক্ষার্থী পরবর্তী প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। উল্লেখ্য, প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে ১০ হাজার ডেভেলপার তৈরিসহ নানা ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। এজন্য পূর্ণাঙ্গ অ্যাপস ডেভেলপার হিসেবে আট হাজার সাতশ পঞ্চাশ (৮,৭৫০) জনকে এবং গেইমিং অ্যানিমেটর হিসেবে দুই হাজার আটশ (২,৮০০) জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এই লক্ষে দেশের বিভিন্ন  বিশ্ববিদ্যালয়/শিক্ষা প্রতিষ্টানে ২০টি কর্মশালার আয়োজন করা হচ্ছে।

  • তথ্যপ্রযুক্তি সেবার রফতানি বাড়াতে বেসিস সফটএক্সপোতে বিটুবি

    সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তি সেবার রফতানি বাড়াতে এবারের বেসিস সফটএক্সপোতে আন্তর্জাতিক বিজনেস টু বিজনেস ম্যাচমেকিংয়ের আয়োজন করা হচ্ছে। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে দেশের বেসরকারি খাতের সবচেয়ে বড় তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক প্রদর্শনী বেসিস সফটএক্সপো। প্রদর্শনীর প্রথমদিন বিকাল ৩টা থেকে এই বিটুবি ম্যাচমেকিং অনুষ্ঠিত হবে।নেদারল্যান্ড, ডেনমার্কসহ বিভিন্ন দেশের অন্তত ১০টি কোম্পানি বাংলাদেশের অর্ধশতাধিক সফটওয়্যার ও তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর কোম্পানির সাথে আলাদা বৈঠকে মিলিত হবেন। এর মাধ্যমে তারা একে অন্যের সঙ্গে আগামীতে ব্যবসায় উন্নয়নে পদক্ষেপ নিতে পারবেন। বেসিসের আগের বিটুবির অভিজ্ঞতা থেকে ধারণা করা হচ্ছে এবারের বিটুবির মাধ্যমে বাংলাদেশি কোম্পানিগুলো বেশ কিছু আন্তর্জাতিক কোম্পানির সাথে ব্যবসায়ের সুযোগ পাবে।‘ফিউচার ইন মোশন’ স্লোগান নিয়ে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এগারতম এ মেলার আয়োজন করছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ বাণিজ্যিক সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)।আগ্রহী যে কেউ অনুষ্ঠানস্থলে কিংবা অনলাইনের নিবন্ধন করে এবারের প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। বেসিস সফটএক্সপোর ওয়েবসাইট (http://softexpo.com.bd/visitor/registration) ভিজিট করে আগ্রহীরাদের নিবন্ধন করতে হবে।উল্লেখ্য, বিগত যেকোনো সফটএক্সপোর তুলনায় বর্ধিত পরিসরে ও নানা আয়োজনে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭ অনুষ্ঠিত হবে। বেসিসের সদস্য প্রতিষ্ঠানসহ দেড় শতাধিক প্রতিষ্ঠান এবারের প্রদর্শনীতে অংশ নিচ্ছে। এছাড়া অতিথি হিসেবে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীবর্গ, আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ, দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রতিনিধিবৃন্দসহ অন্তত ৫ লাখ দর্শনার্থী উপস্থিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।এবারের আয়োজনে অন্তত ২০টি সেমিনার, ১০টি টেকনিক্যাল সেশন, টেক উইমেন কনফারেন্স, ডেভেলপার কনফারেন্স, শিশুদের জন্য কোডিংসহ অনেকগুলো বড় আয়োজন থাকছে।

  • সদস্যদের জন্য বিশেষ সেবা কার্ড চালু করবে বেসিস

    বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) তার সদস্যদের জন্য বিশেষ সেবা কার্ড চালু করতে যাচ্ছে। এই কার্ডের মাধ্যমে বিভিন্ন হোটেল, রেস্টুরেন্ট, হাসপাতাল, বিমানবন্দরসহ প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ ছাড় পাবেন সদস্যরা। এই কার্ড চালুর অংশ হিসেবে ইউনাইটেড হাসপাতাল ও গ্লোবাল এয়ারপোর্ট অ্যাসিস্টিং সার্ভিসেসের সাথে আলাদা চুক্তিস্বাক্ষর করেছে বেসিস।রবিবার (২২ জানুয়ারি ২০১৭) বেসিস সভাকক্ষে উক্ত চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। বেসিস সভাপতি জনাব মোস্তাফা জব্বারের উপস্থিতিতে বেসিসের পক্ষ থেকে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন প্রতিষ্ঠানটির সদস্য কল্যাণ সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান জনাব দেলোয়ার হোসেন ফারুক। ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের কমিউনিকেশন ও বিজনেস ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান ড. শাগুফা আনোয়ার এবং গ্লোবাল এয়ারপোর্ট অ্যাসিস্টিং সার্ভিসেসের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব খন্দকার ফারহান আতিফ নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বেসিসের সচিব জনাব হাশিম আহম্মদ, সদস্য কল্যাণ সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির কো-চেয়ারম্যান জনাব মোহাম্মদ সামিউল ইসলাম, ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের বিপণন বিভাগের ডেপুটি ইনচার্জ জনাব সৈয়দ আশরাফ-উল মাসুম, কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।বেসিস সভাপতি জনাব মোস্তাফা জব্বার বলেন, বেসিস সদস্যরা যাতে তাদের ব্যবসার পাশাপাশি ব্যক্তিগত, পারিবারিক প্রয়োজনে, জরুরী মুহুর্তে ও ভ্রমণকালীন বিশেষ সুবিধা ও অগ্রাধিকার পেতে পারে তার জন্য শিগগিরই বিশেষ সেবা কার্ড চালু করা হবে। এ উপলক্ষ্যে বিভিন্ন কোম্পানির সাথে চুক্তিস্বাক্ষর করা হচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় এই চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হলো। আগামীতে আরও সেবা যুক্ত করা হবে।

  • বেসিস সফটএক্সপোতে থাকছে আইটি জব ফেয়ার

    আগামী ১ থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে দেশের বেসরকারি খাতের সবচেয়ে বড় তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক প্রদর্শনী বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭। আয়োজনের অংশ হিসেবে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহীদের চাকরির সুযোগ দিতে থাকছে ‘আইটি জব ফেয়ার’। প্রদর্শনীর সমাপনী দিন (৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭) সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত এই ফেয়ার চলবে।বেসিস স্টুডেন্টস ফোরামের সহযোগিতায় আয়োজিত এবারের আইটি জব ফেয়ারে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষস্থানীয় বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান তাদের যথোপযুক্ত জনবল খুঁজে নিতে অংশগ্রহণ করবে। প্রোগ্রামিং, ডিজাইন, মার্কেটিং, বিজনেস ডেভেলপমেন্ট, অ্যাকাউন্টিংসহ বিভিন্ন পদের জন্য আগ্রহীরা সিভি জমা দিতে পারবেন। প্রদর্শনীর প্রথম দিন থেকেই অনুষ্ঠানস্থলে থাকা নির্ধারিত বক্সে সিভি জমা দেওয়া যাবে। সমাপনী দিনে অনুষ্ঠিত আইটি জব ফেয়ারে সিভি জমাদানকারীরা ও সরাসরি উপস্থিত চাকরিপ্রার্থীরা অংশগ্রহণকারী কোম্পানিগুলোর সাথে সাক্ষাতকার দিতে পারবেন।এছাড়া আইটি জব ফেয়ারে শিক্ষার্থী, চাকরিপ্রত্যাশী ও চাকুরিজীবিদের উন্নত ক্যারিয়ার গাইডলাইন দিতে থাকবে বিশেষ সেমিনার। যেখানে অভিজ্ঞ বক্তারা তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ক্যারিয়ার গড়তে করণীয় বিভিন্ন বিষয়ে দিকনির্দেশনা দেবেন।আগ্রহী যে কেউ অনুষ্ঠানস্থলে কিংবা অনলাইনের নিবন্ধন করে বিনামূল্যে আইটি জব ফেয়ারে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। বেসিস সফটএক্সপোর ওয়েবসাইট (http://softexpo.com.bd/visitor/registration) ভিজিট করে আগ্রহীরাদের নিবন্ধন করতে হবে।‘ফিউচার ইন মোশন’ স্লোগান নিয়ে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এগারতম এ মেলার আয়োজন করছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ বাণিজ্যিক সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)।উল্লেখ্য, বিগত যেকোনো সফটএক্সপোর তুলনায় বর্ধিত পরিসরে ও নানা আয়োজনে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭ অনুষ্ঠিত হবে। বেসিসের সদস্য প্রতিষ্ঠানসহ দেড় শতাধিক প্রতিষ্ঠান এবারের প্রদর্শনীতে অংশ নিচ্ছে। এছাড়া অতিথি হিসেবে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীবর্গ, আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ, দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রতিনিধিবৃন্দসহ অন্তত ৫ লাখ দর্শনার্থী উপস্থিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

  • বেসিস সফটএক্সপোতে অন্তত ২০টি সেমিনার

    আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে দেশের বেসরকারি খাতের সবচেয়ে বড় তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক প্রদর্শনী বেসিস সফটএক্সপো। ‘ফিউচার ইন মোশন’ স্লোগান নিয়ে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এগারতম এ মেলার আয়োজন করছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ বাণিজ্যিক সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)।এবারের সফটএক্সপোতে তথ্যপ্রযুক্তির বিভিন্ন দিক নিয়ে অন্তত ২০টি সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানস্থলের মিডিয়া বাজার ও উইন্ডি টাউন হলে এসব সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।এসব সেমিনারের মধ্যে রয়েছে - স্থানীয় কোম্পানির জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি, ডিজিটাল এডুকেশন ও ই-লার্নিং, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট, ইন্টারনেট অব থিংকস, অ্যাক্সেস টু ফিন্যান্স, ক্লাউড কম্পিউটিং, ডেটা নেটওয়ার্ক সিকিউরিটি, রফতানি বাজার উন্নয়ন, ডেভেলপিং ইনোভেশন ইকোসিস্টেম, ডিজিটাল সার্ভিস ডেলিভারি, আইটি মার্কেট রিসার্চ, কোয়ালিটি সার্টিফিকেশনসহ নানা বিষয়।এসব সেমিনারে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীবর্গ, সচিব, কর্মকর্তা, নীতিনির্ধারক, সংশ্লিষ্ট বিষয়ে দেশি-বিদেশি অভিজ্ঞ বক্তা/আলোচকবৃন্দ উপস্থিত থেকে আলোচনা করবেন।আগ্রহী যে কেউ অনুষ্ঠানস্থলে কিংবা অনলাইনের নিবন্ধন করে সেমিনারে বিনামূল্যে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। বেসিস সফটএক্সপোর ওয়েবসাইট (http://softexpo.com.bd/visitor/registration) ভিজিট করে আগ্রহীরা নিবন্ধন করতে হবে।উল্লেখ্য, বিগত যেকোনো সফটএক্সপোর তুলনায় বর্ধিত পরিসরে ও নানা আয়োজনে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭ অনুষ্ঠিত হবে। বেসিসের সদস্য প্রতিষ্ঠানসহ দেড় শতাধিক প্রতিষ্ঠান এবারের প্রদর্শনীতে অংশ নিচ্ছে। এছাড়া অতিথি হিসেবে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীবর্গ, আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ, দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রতিনিধিবৃন্দসহ অন্তত ৫ লাখ দর্শনার্থী উপস্থিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

  • ফুলবাড়ীতে তথ্য সংগ্রহের সভা অনুষ্ঠিত

    দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে ন্যাশনাল হাউজ হোল্ড ডাটা বেইজ প্রকল্পের আওতায় প্রস্তুতি মুলক এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বুধবার ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ এহেতেশাম রেজার অফিস কক্ষে তার সভাপতিত্বে ন্যাশনাল হাউজ হোল্ড ডাটা বেইজ (এনএইচডি)’র আওতায় আর্থ সামাজিক তথ্য সংগ্রহের নিমিত্বে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রস্তুতি সভায় উপস্থিত ছিলেন, ফুলবাড়ী উপজেলা শুমারী সম্বনয়কারী মোঃ গোলাম ফারুক, ফুলবাড়ী উপজেলা কৃষি অফিসার এটিএম হামিম আশরাফ, ফুলবাড়ী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোছাঃ হাসিনা ভুইয়া, ফুলবাড়ী উপজেলা পরিসংখ্যান তদন্তকারী মোঃ আফতাব উদ্দিন, ফুলবাড়ী উপজেলা সমবায় অফিসের সহকারী পরিদর্শক মোতাহার হোসেন, ফুলবাড়ী উপজেলা আনছার ভিডিপি কর্মকর্তা মোছাঃ তাহেরা সুলতানা, ফুলবাড়ী উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ইসমাইল হোসেন, ফুলবাড়ী থানার ওসি তদন্ত আব্দুর রহমান,। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বেতদিঘী ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মোঃ আব্দুল কুদ্দুস, কাজিহাল ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মানিক রতন, শিবনগর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মামুনুর রশিদ চৌধূরী বিল্পব, খয়ের বাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আবু তাহের, ফুলবাড়ী থানা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ আফজাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মেহেদী হাসান উজ্জল, যায়যায়দিন ফুলবাড়ী প্রতিনিধি মোঃ রজব আলী। এছাড়া ফুলবাড়ী উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসের সকল জোনাল অফিসার বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

  • তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে কৃষি খাতের উন্নয়নে কাজ করবে বেসিস ও ইউএসএইড

    বাংলাদেশের কৃষি খাতে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার বৃদ্ধি ও সংশ্লিষ্টদের মানোন্নয়নে যৌথভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) ও ইউএসএইড। সোমবার বেসিস সভাকক্ষে উভয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এক বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বারের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন ইউএসএইড’স এগ্রিকালচারাল ভ্যালু চেইনস (এভিসি) প্রকল্পের চীফ অব পার্টি মাইকেল ফিল্ড, আইসিটি মার্কেট স্পেশালিস্ট মাসুদ রানা ও বেসিসের পরিচালক উত্তম কুমার পাল।বৈঠকে উভয় প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কৃষির জন্য তথ্যপ্রযুক্তি টুলস উদ্ভাবন, কৃষকদের সচেতনতা বৃদ্ধি, গবেষণা ও যারা এসব টুলস ব্যবহার করতে চায় তাদের সহযোগিতার বিষয়ে যৌথভাবে কাজ করার কথা জানানো হয়। একইসাথে বেসিসের সদস্য কোম্পানিরা যাতে এই প্রকল্পের সাথে যুক্ত হয়ে কাজ করতে পারে সেজন্য তাদের মানোন্নয়নে ও দক্ষতা উন্নয়নে কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।এ বিষয়ে শিগগিরই বেসিস ও ইউএসএইডের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হবে বলে বৈঠকে জানানো হয়। আগামী ২০১৮ সালের জুন এর মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে।

  • ডিজিটাল শিক্ষায় বিনিয়োগের আগ্রহ চীন

    বাংলাদেশের শিক্ষার ডিজিটাল রুপান্তরের জন্য কারিগরি ও আর্থিক সহায়তা দেবে চীন। শনিবার (১৪ জানুয়ারি ২০১৭) বিকেলে বেসিস কার্যালয়ে বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বারের সাথে চায়না সাউথ পাবলিশিং ও মিডিয়া গ্রুপের একটি প্রতিনিধিদল সাক্ষাৎ করেন। এসময় প্রতিনিধিদল এই আগ্রহের কথা জানান।চায়না সাউথ পাবলিশিং ও মিডিয়া গ্রুপের এই প্রতিনিধি দলে ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তা জেমস শু এবং লরা ট্যাঙ্গ। তারা প্রতিষ্ঠানটি কিভাবে বই, পত্রিকা থেকে শুরু করে ডিজিটাল কনটেন্ট তৈরিতে ভূমিকা রাখছেন এসব তথ্য তুলে ধরেন। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের শিক্ষাকে ডিজিটাল করার জন্য কারিগরি ও আর্থিক সহায়তা দেবার আগ্রহ প্রকাশ করেন তারা।বেসিস সভাপতি তাদেরকে জানান, দেশের চার কোটি শিক্ষার্থীর পক্ষ থেকে চীনের এই আগ্রহকে বেসিস স্বাগত জানায়। বিশেষত ডিজিটাল ডিভাইস ও ডিজিটাল উপাত্ত উন্নয়নে চীন সহায়তা করলে বেসিস সদস্যরা এক্ষেত্রে সকল প্রকারের সহায়তা করবে বলেও উল্লেখ করেন।

  • লামায় অনুষ্ঠিত হলো বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড়

    বান্দরবানের লামা মাতামুহুরী ডিগ্রি কলেজ ভেন্যুতে উৎসবমুখ পরিবেশে শুক্রবার দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হলো বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড়’২০১৭। জাতীয় সংগীতের সাথে জাতীয়, বিজ্ঞান একাডেমী, ফার্ষ্টসিকিউরিটি ব্যাংক, এটিএনবাংলা ও সমকাল পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে অলিম্পিয়াড়ের প্রথমার্ধ উদ্ভোধন করেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার খিন ওয়ান নু। কলেজের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত উদ্বোধনী অনুষ্টানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেস্ট ইনষ্টটিটের অধ্যাপক এটিএম, রফিকুল হক প্রধান অতিথি, আলীকদম সেনা জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর তানবীর, ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের ব্যবাস্থাপক মোঃ ফেরদাউস ও জুনিয়ার অফিসার মোশারপ হোসেন, এটিএন বাংলার জেলা প্রতিনিধি মিনারুল হক, সমকাল প্রতিনিধি প্রিয়দর্শী বড়–য়া বিশেষ অতিথি ছিলেন।বাংলাদেশ বিজ্ঞান একাডেমী ও সমকালের উদ্যোগে এবং ফর্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের পৃষ্টপোষকতায় সহযোগিতায় ছিল- এটিএন বাংলা, ভূমি ৯২.৮ এফএম, নিউএজ ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলানিউজ ২৪ডটকম। এদিন সকাল থেকে লামা, আলীকদম ও চকরিয়া উপজেলার ৪ টি কলেজ ও ৯ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৫৬ জন ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে ওঠে পাহাড়ি কুয়াশার চাদরে ঢাকা মাতামুহুরী ডিগ্রী কলেজ ক্যাম্পাস।অনুষ্ঠানের দ্বিতীয়ার্ধে কলেজের দ্বিতীয় তলায় বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত উৎসব মুখল পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয় বিজ্ঞান পরীক্ষা। পরীক্ষার ফলাফলে মাধ্যমিক পর্যায়ে চকরিয়া আবাসিক মহিলা কলেজে রেশমা বেগম রিয়া, ডুলাহাজারা ডিগি কলেজের মাহমুদুল হাসান ও মিকতাহুল জন্নাত, চকরিয়া আবাসিক মহিলা কলেজের উম্মে সালমা ও সাইমা সুলতানা, ডুলাহাজারা ডিগ্রি কলেজের দিদারুল ইসলাম ও শায়েফ শিবলী, চকরিয়া আবাসিক মহিলা কলেজের শিরমনি। স্কুল পর্যায়ে ১ম থেকে ৭ম স্থান অধিকারকারিরা হলো- চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীটের আব্দুুল্লাহ্ আল মাহমুদ তৈয়ব, চকরিয়া গ্রামার স্কুলের মোস্তাফিজুর রহমান শিমন ও শাহরিয়ার রশিদ। লামা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের আমিনুল ইসলাম, চকরিয়া কোরক বিদ্যাপীটের মোহাম্মদ মিজবাহ উদ্দিন ও হাসান আব্দুল্লাহ্ আল জারিফ, লামা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রজ্ঞা খিয়াং। জুমা নামাজের পর অলিম্পিয়াডের তৃতীয়ার্ধে অনুষ্টিত হয় কলেজ ক্যাম্পাসে ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের সমন্বয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। পরে বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড় উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইসমাইল। এতে চবি’র ফরেস্ট ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক এটিএম, রফিকুল হক প্রধান বক্তা এবং জেলাপরিষদ সদস্য মোস্তাফা জামাল, ডুলাহাজারা কলেজ অধ্যক্ষ মোঃ ফরিদ উদ্দিন ও সমকাল প্রতিনিধি প্রিয়দর্শী বড়–য়া প্রমুখ বিশেষ অতিথি ছিলেন। অতিথি মেজর জাহিদুর রহমান পিএসসি বিজয়ী ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের হাতে সার্টিফিকেট ও পুরস্কার তুলে দেন।

  • ফেব্রুয়ারিতে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭

    আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে দেশের বেসরকারি খাতের সবচেয়ে বড় তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক প্রদর্শনী বেসিস সফটএক্সপো। ‘ফিউচার ইন মোশন’ স্লোগান নিয়ে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এগারতম এ মেলার আয়োজন করছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ বাণিজ্যিক সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)। বিগত যেকোনো সফটএক্সপোর তুলনায় বর্ধিত পরিসরে ও নানা আয়োজনে বেসিস সফটএক্সপো ২০১৭ অনুষ্ঠিত হবে। বেসিসের সদস্য প্রতিষ্ঠানসহ দেড় শতাধিক প্রতিষ্ঠান এবারের প্রদর্শনীতে অংশ নিচ্ছে। এছাড়া অতিথি হিসেবে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীবর্গ, আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ, দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের প্রতিনিধিবৃন্দসহ অন্তত ৫ লাখ দর্শনার্থী উপস্থিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।এ বছর প্রদর্শনী এলাকাকে বিজনেস সফটওয়্যার জোন, আইটিইএস এবং বিপিও জোন, মোবাইল ইনোভেশন জোন ও ই-কমার্স জোন এই ৪টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবসায় প্রসারে থাকছে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বিজনেস ম্যাচমেকিং সেশন। বাড়তি সুবিধা হিসেবে থাকবে বিজনেস লাউঞ্জ। এছাড়া উল্লেখযোগ্য ইভেন্টের মধ্যে রয়েছে সিএক্সও নাইট এবং অ্যাওয়ার্ড নাইট।তরুণ প্রজন্মকে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে চাকরির সুযোগ করে দেওয়ার লক্ষ্যে থাকছে আইটি জব ফেয়ার। যেখানে বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তি কো¤পানিগুলো খুঁজে নিবে তাদের পছন্দসই প্রার্থীদের। শিশুদের জন্য থাকছে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা।    চারদিনের এই প্রদর্শনী চলাকালে প্রায় ৩০টি সেমিনার ও কর্মশালা অনুষ্ঠিত হবে। এতে দেশ-বিদেশের স্বনামধন্য তথ্যপ্রযুক্তিবিদ ও আলোচকরা বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করবেন। আউটসোর্সিং পেশায় জড়িতদের কাজের স্বীকৃতি দিতে বিগত কয়েক বছর ধরে বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ডের আয়োজন করে আসছে। এবারের সফটএক্সপোতে বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ডের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনও করা হবে।প্রদর্শনীতে আগত দর্শনার্থীরা অনুষ্ঠানস্থলে এসেও যাতে অনলাইনে বিভিন্ন তথ্য খোঁজা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপডেট দেওয়া কিংবা ইন্টারনেটের মাধ্যমে তাদের জরুরী কাজটি সেরে ফেলতে পারেন তার জন্য থাকছে দ্রুতগতির ওয়াইফাই ইন্টারনেট সুবিধা।আগ্রহী যে কেউ অনুষ্ঠানস্থলে কিংবা অনলাইনের মাধ্যমে আগে থেকেই নিবন্ধন করে বিনামূল্যে প্রদর্শনীতে প্রবেশ করতে পারবেন। বেসিস সফটএক্সপোর নিজস্ব ওয়েবসাইট (http://www.softexpo.com.bd) ভিজিট করে আগ্রহীরা নিবন্ধন করতে পারবেন। সেখানে প্রদর্শনীর বিস্তারিত তথ্যও পাওয়া যাবে।

  • ১৬ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ করা হবে

    চলতি বছরের ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ করা হবে বলে জানিয়েছে ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ১৮তম বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়। কমিটির সভাপতি ইমরান আহমদের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম এবং মোয়াজ্জেম হোসেন রতন উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে ২০১৬-তে ডাক, টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সব বিভাগের কার্যক্রমের সাফল্য নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। এ সময় জানানো হয় চলতি বছরের ডিসেম্বরে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ করা হবে। বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। কমিটিকে জানানো হয় যে, বায়োমেট্রিক ভেরিফেকেশন, অভিযোগ ব্যবস্থাপনা টাস্কফোর্স এবং কোয়ালিটি অব সার্ভিস, বাংলাদেশ সাব মেরিন কেবল কোম্পানি কর্তৃক দেশকে দ্বিতীয় সাব মেরিন কেবলে সংযুক্তকরণ, ইন্টারনেট ব্যবহারের মূল্য হ্রাসকরণ, ভারতে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের প্রদেশগুলোতে ব্যান্ড উইথ লিজ দেয়ার উদ্যোগ এবং ব্যান্ড উইথ ব্যবহার বৃদ্ধিসহ নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। কমিটিকে আরও জানান হয় যে, বিটিসিএল কর্তৃক টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্ক উন্নয়ন ১০০০টি ইউপি  ও উপজেলা পর্যায়ে অপটিক্যাল ফাইবার উন্নয়ন; টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেড কর্তৃক টেলিটক রি-ব্রান্ডিং কার্যক্রম, রিটেইল মার্কেট ব্যবস্থাপনায় গতিশীলতা আনয়ন এবং ‘স্মল সেল’ শীর্ষক প্লাটফর্ম স্থাপন করা হয়েছে। ডাক অধিদফতর কর্তৃক পোস্ট ই-সেন্টার ফর রুরাল কমিউিনিটি, ডাক বিভাগের কার্যপ্রক্রিয়া স্বয়ংক্রিয়করণ, তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর গ্রামীণ ডাকঘর নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া পোস্ট ই-কমার্স সার্ভিস টেলিফোন শিল্প সংস্থা কর্তৃক স্বল্পমূল্যে ল্যাপটপ কম্পিউটার সংযোজন এবং বাংলাদেশ কেবল শিল্প লিমিটেড কর্তৃক উৎপাদিত টেলিফোন কপার কেবল, অপটিক্যাল ফাইবার কেবল সরকারি প্রতিষ্ঠানসহ প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানে সরবরাহ করা হচ্ছে। বৈঠকে ডাক, টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন যে সব প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে সেসব প্রকল্পের কাজ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শেষ করার সুপারিশ করা হয়।

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top