লক্ষ্মীপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস দালালের দৌরাত্ম্য কমে যাওয়ায় সর্বোচ্চ সেবা পাচ্ছেন গ্রাহকরা। গত ১৫ মাসে ৩৩ হাজার ৭৩৮টি আবদনে প্রায় ১২ কোটি ৭৩ লাখ ২৩ হাজার ৬২০ টাকা রাজস্ব আয় হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর পাসপোর্ট অফিস সূত্রে জানায়, প্রতিদিন এ কার্যালয়ে প্রায় ৮০-৯০টি আবেদনপত্র জমা পড়ে। বর্তমানে গ্রাহকরা দালালদের স্মরণাপন্ন হয়ে প্রতারণার শিকার হতে হয় না। সাধারণ আবেদনে ক্ষেত্রে একটি পাসপোর্ট ৩ হাজার ৪৫০ টাকায় ২১ কার্যদিবসের মধ্যে এবং জরুরি আবেদনের ক্ষেত্রে পাসপোর্ট ৬ হাজার ৯০০ টাকায় ১১ কার্যদিবসের মধ্যে পাওয়া যায়। ১৫ মাসে ৩৩ হাজার ৭৩৮টি পাসপোর্টে ১২ কোটি ৭৩ লাখ ২৩ হাজার ৬২০ টাকা রাজস্ব আয় করা সম্ভব হয়েছে।

গ্রাহকদের নির্ধারিত নি¤েœাক্ত ব্যাংকের অনুমোদিত শাখা ফিস জমা দিতে হবে। যেমন সোনালী ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংক ও এশিয়া ব্যাংক শাখায় টাকা জমা দিতে হয়। ব্যাংক থেকে টাকা জমার রশিদ গ্রাহক নিজ হাতে পাসপোর্ট কার্যালয়ে জমা দিলে আবেদন ফরম দেয়া হয়। পাসপোর্টের জন্য জমা দেয়া সকল টাকা সরকারের রাজস্ব খাতে জমা হয়।

২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১৮ সালের মার্চ পর্যন্ত ১৫ মাসে এ কার্যালয় থেকে মোট ৩৩ হাজার ৭৩৮টি পাসপোর্ট ইস্যু করে গ্রাহকদের হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

পাসপোর্ট অধিদপ্তর লক্ষ্মীপুর আঞ্চলিক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. মাহবুবুর রহমান জানান, তিনি এ কার্যালয়ে যোগদানের পর থেকে দালালের দৌরাত্ম্য কমেছে। এতে গ্রাহকরা সর্বোচ্চ সুযোগ পাচ্ছেন। খুব সহজেই গ্রাহকরা নির্দিষ্ট সময়ে মধ্যে পাসপোর্ট হাতে পান।

Author

ID NO : স্টাফ রিপোর্টার

Share Button

Comment Following News

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top