যুক্তরাষ্ট্রে সিরিয়া যুদ্ধ ফেরত এক যুবক বুধবার তার অপরাধ স্বীকার করেছেন। লোকটি শরণার্থী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় নেন। পরে তিনি সিরিয়ায় গিয়ে সেখানকার একটি চরমপন্থী দলের পক্ষে যুদ্ধ করেন।

ওই যুবকের নাম মোহাম্মদ ইউনিস আল-জায়াব (২৫)। খবর এএফপি’র।

বিচার বিভাগ জানায়, তিনি স্বীকার করেন যে ২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো থেকে তুরস্ক হয়ে সিরিয়ায় প্রবেশ করেন। সেখানে তিনি চরমপন্থী সংগঠন আনসার-আল-ইসলাম এ যোগ দেন এবং সংগঠনটির পক্ষে যুদ্ধ করেন।

দলটি একটি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত।

ইউনিস তার অপরাধ স্বীকার করার পর বিচার বিভাগ এক বিবৃতিতে একথা জানিয়েছে।

আল-কায়েদা সমর্থিত আনসার আল-ইসলাম এক সময় ইরাক ও সিরিয়া উভয় দেশেই তাদের তৎপরতা চালাতো।

সংগঠনটির ইরাকি অংশ পরবর্তীতে ইসলামিক স্টেট গ্রুপের সঙ্গে একীভূত হয়ে যায়। যদিও সংগঠনটির কয়েকজন যোদ্ধা আইএস এ যোগ দেয়নি।

বিদেশী একটি সন্ত্রাসী সংগঠনকে সমর্থন দেয়ায় সর্বোচ্চ ১৫ বছরের জেল হতে পারে। ফেডারেল এজেন্টদের কাছে মিথ্যা বলার অপরাধে তার আট বছরের জেল হতে পারে।

বিচার বিভাগ জানায়, ২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে এসে তিনি তুরস্ক ও সিরিয়ায় সফরের কথা গোপন রেখেছিলেন।

পরে ফেডারেল এজেন্টেদের কাছে জিজ্ঞাসাবাদের সময় তিনি সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোকে সমর্থন দেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

ইরাকে জন্মগ্রহণকারী ফিলিস্তিনী বংশদ্ভুত ইউনিস সিরিয়া থেকে শরণার্থী হিসেবে ২০১২ সালে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন।

আগামী বছরের ২৬ এপ্রিল তার মামলার রায় ঘোষণা করা হবে।

Author

ID NO : এএফপি

Share Button

Comment Following News

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top