আবারো বাড়ছে সব ধরনের গ্যাসের দাম। কাল থেকে গ্যাসের দাম বাড়ানোর ওপর শুনানি করবে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন-বিইআরসি। এর আগে, সব প্রস্তুতি নিয়েও নির্বাচনের আগে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রক্রিয়া থেকে সরে আসে তারা। গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলো গড়ে ৬৬ শতাংশ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে। তবে ভোক্তারা বলছে, গ্যাস সংকট না মিটিয়ে দাম বাড়ানো অযৌক্তিক। ভোক্তা অধিকার সংগঠন ক্যাবের মতে, একই অর্থ বছরে দু’বার গ্যাসের দাম বাড়ানো বেআইনি। রাজধানীর কোথাও কোথাও বাসা-বাড়িতে রান্নার সময় চুলায় গ্যাস পাওয়া যায় না। নিরুপায় হয়ে মধ্যরাতে রান্না করতে হয়। নইলে থাকতে হয় দুপুরের পর গ্যাস আসার অপেক্ষায়। গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলো চায়, এক বার্নারের গ্যাসের চুলা ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১ হাজার টাকা, আর-দুই বার্নারের চুলা ৮০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১২০০ টাকা করতে।

মিটারযুক্ত চুলায় প্রতি ঘনমিটার গ্যাসের দাম ৯ টাকা ১০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১৩ টাকা ৬৫ পয়সা করার প্রস্তাবও দিয়েছে গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলো। বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোর গ্যাসের দাম প্রতি ঘনমিটারে ৩ টাকা ১৬ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৭ টাকা ৬৬ পয়সা, সার কারখানায় ২ টাকা ৭১ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৭ টাকা, ক্যাপটিভ বিদ্যুৎকেন্দ্রের ক্ষেত্রে ৯ টাকা ৬২ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১৫ টাকা ৭০ পয়সা, শিল্প কারখানায় ৭ টাকা ৭৬ পয়সা থেকে ১৫ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে তারা। সিএনজির গ্যাসের দাম ৩২ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৪০ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে কোম্পানিগুলো। ব্যয়বহুল এলএনজি আমদানির কারনে সরকার গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা। গ্যাসের দাম বাড়ানো নিয়ে ১১ মার্চ থেকে ১৪ মার্চ পর্যন্ত গণশুনানি চলবে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনে।

Author

ID NO :

Share Button

Comment Following News

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top