সকাল ১০টায় কংগ্রেস অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনে প্রথমেই সেশন পরিচালনার জন্য প্রেসিডিয়াম নির্বাচিত হয়। প্রেসিডিয়াম সদস্যবৃন্দ হলেন -১। কমরেড রাশেদ খান মেনন ২। কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা ৩। কমরেড আনিসুর রহমান মল্লিক ৪। কমরেড হাজেরা সুলতানা ৫। কমরেড আমিনুল ইসলাম গোলাপ এবং ৬। কমরেড হাজি বশিরুল আলম। অনুষ্ঠানসূচী অনুযায়ী রাজনৈতিক প্রস্তাব পেশ করেন কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা। রাজনৈতিক প্রস্তাব প্রথম অংশে বিশ্ব পরিস্থিতি ও দেশীয় রাজনীতির পর্যালোচনা করা হয়। ১ম পর্বের এই দলিলের উপর জেলাগুলি আলোচনা করছেন। কংগ্রেসে ইতোমধ্যে জেলা প্রতিনিধিত্ব করছে ৫৮টি, প্রতিনিধির সংখ্যা ৫৭২, পর্যবেক্ষক সংখ্যা ৭৯ জন, মোট ৬৫১ জন প্রতিনিধি পর্যবেক্ষক উপস্থিত আছেন। সদস্যদের আর্থ-সামাজিক অবস্থান, সদস্য প্রাপ্তির বছর ইত্যাদি জানার জন্য ক্রেডেনশিয়াল কমিটি ঘোষণা করা হয়, কমিটির আহ্বায়ক কমরেড নজরুল ইসলাম হাক্কানী, সদস্য কমরেড নজরুল হক নীলু, কমরেড কিশোর রায়।
দুপুরের খাবারের বিরতি পর্যন্ত রাজনৈতিক প্রস্তাবের উপর আলোচনা করেছে ১৫ টি জেলা।
ইতোমধ্যে ৪টি রাজনৈতিক প্রস্তাব গৃহীত হয়।
১। ৩ নভেম্বর ১৯৭৫ সালের ঐতিহাসিক ঘৃণিত জেল হত্যা দিবসকে স্মরণ করে সেই ঘটনার নিন্দা জানানো হয়। সেই হত্যাকা-ের শিকার জাতীয় চার নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদ, কামরুজ্জামান, ক্যাপ্টেন মনসুর আলীর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়। এবং সেই ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবী তোলা হয়।
২। ১০ম কংগ্রেস গভীর উদ্বেগের সংগে লক্ষ্য করছে, দেশের ধনবৈষম্য বিপদজনক মাত্রা ছাড়িয়েছে । বিগত ১০ বছরে কাঠামোগতভাবে বাংলাদেশের অর্থনীতির দৃশ্যমান উন্নতি হয়েছে। মাথাপিছু গড় আয় বেড়ে ১৭৫২ ডলার হয়েছে, দেশ অর্থনীতিতে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে। এ যাবৎকাল জি ডি পি প্রবৃদ্ধির হার ৭% এর উপরে থেকেছে। এবার তা ৮.২৫% পৌঁছাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক অর্থনীতির মন্দা বাংলাদেশের সামষ্টিক অর্থনীতিতে খুব প্রভাব ফেলতে পারেনি। মুদ্রাস্ফীতিও ৫.৫% এর কাছাকাছি। দারিদ্র কমে দাঁড়িয়েছে ২২ শতাংশে। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ এখন ৩৩ বিলিয়ন ডলার। এ সময়কালে এম ডি জি অর্জিত হয়েছে, এস ডি জি রও দৃশ্যমান অগ্রগতি হয়েছে। দৃশ্যত:ই এসবই উন্নয়নের চালচিত্র।
৩। কিন্তু, কংগ্রেস মনে করে, সামষ্টিক অর্থনীতির এই ইতিবাচক চিত্রের পাশাপাশি ব্যষ্টিক অর্থনীতির নেতিবাচক দিকগুলি স্পষ্টভাবে দৃশ্যমান হচ্ছে। অর্থনীতির এই উন্নয়ন শ্রমিক-কৃষক সহ শ্রমজীবি ও নিম্ন আয়ের মানুষের কাছে যেতে পারেনি। ঘুষ-দুর্নীতি-দলীয় সংকীর্ণতা, আমলাতান্ত্রিক দুর্নীতির সর্বব্যাপী আগ্রাসী প্রসার জনজীবনে গভীরভাবে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। ধনীগরীবের বৈষম্য বেড়েছে লাগামহীনভাবে। বাংলাদেশে ধনকুবেরের সংখ্যা গত ৫ বছরে বেড়েছে ১৭ শতাংশ। বৈষম্য পরিমাপে ব্যবহৃত গিনি সূচক ২০১০ সালে ছিল ০.৩২, এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ০.৪৮ যা বিপদজনক পর্যায়ে উপনীত হয়েছে। গ্রামীন অর্থনীতির সঙ্গে শহর কেন্দ্রিক অর্থনীতির বৈষম্য বেড়েছে। গ্রামীন কর্মসংস্থান কমছে, ফলে মানুষ শহরমুখী হতে বাধ্য হচ্ছে। সামাজিক নিরাপত্তার জন্য গৃহীত প্রকল্পগুলি দুর্নীতি, দলীয় সংকীর্ণতায় সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছাচ্ছে না। বেকারত্ব, কাজের অনিশ্চয়তা, মাদকাসক্তি গোটা যুব-সমাজকে হতাশার গভীরে ঠেলে দিচ্ছে। দেশের কর্মম জনসংখ্যা যাদের বয়স ১৮ থেকে ৪০ এর মধ্যে এখন ৫ কোটি ৩০ ল ছাড়িয়ে গেছে, তাদেরকে কার্যকরভাবে সমাজের উন্নয়নের ধারায় নিয়ে আসার কার্যকর পরিকল্পনা ও পদপে অনুপস্থিত। নিয়মিত কর্মসংস্থানের পরিমান মাত্র ১২.৩%, অনিয়মিত কর্মসংস্থান ৮৭.৭%। বেকারের সংখ্যা ১ কোটি ২০ লক্ষ প্রায়। এই পরিস্থিতি মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণা ও সাংবিধানে সামাজিক ন্যায় বিচার, মানবিক মর্যাদা ও সমতা বিধানের যে প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল তা এখন দুরের বস্তুতে পরিনত হয়েছে।
৪। ১০ম কংগ্রেস এই ধনবৈষম্য কমিয়ে আনার জন্য অবিলম্বে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জোর দাবী জানাচ্ছে। কংগ্রেস বাংলাদেশ যেভাবে পরিচালিত হচ্ছে তা পরিহার করে সমতা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে জনকল্যাণমূলক নীতি গ্রহণ, বেকার যুবকেদের কর্মসংস্থান, গ্রাম-শহরের অর্থনৈতিক কমিয়ে আনার জন্য গ্রামীন কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, বাজেটে জেলাভিত্তিক বরাদ্দ নিশ্চিত করে, কৃষকের ফসলের ন্যায্য মূল্য, ৬০ বছরের উর্ধে গ্রামীন ভূমিহীনদের পেনশন ও শ্রমজীবি মানুষের কর্মনিশ্চয়তা প্রদানের ও সামাজিক নিরাপত্তার জন্য গৃহীত প্রকল্পগুলি দুর্নীতি, দলীয় সংকীর্ণতার বাইরে নিয়ে তাকে সাধারণ মানুষের কাছে নিয়ে আসার জোর দাবী জানাচ্ছে।
এছাড়াও বিশ্বব্যাপী সা¤্রজ্যবাদবিরোধী সংগ্রামের প্রতি সংহতি জানিয়ে প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়।
১। বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি ১০ম কংগ্রেস দৃঢ়ভাবে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, রণনৈতিক, প্রতিরক্ষা ও বৈদেশিক নীতিতে সা¤্রাজ্যবাদের সকল প্রকার হস্তক্ষেপ, অনুপ্রবেশ ও প্রভাবের তীব্র বিরোধীতা করছে।
২। কংগ্রেস সাম্প্রতিককালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষিত চীনের বিরুদ্ধে বানিজ্যযুদ্ধ, উত্তর কোরিয়া, ভেনিজুয়েলা, ইরান, মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ‘অর্থনৈতিক অবরোধ’ এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে।
৩। কংগ্রেস আন্তর্জাতিক ও জাতীয় সকল ক্ষেত্রে ব্যক্তি বা রাষ্ট্রীয় প্ররোচনায় সংঘটিত সকল ধরণের সন্ত্রাসের বিরোধীতা করছে।
৪। কংগ্রেস আন্তর্জাতিকভাবে নয়া-উদারতাবাদ, নয়া-ফ্যাসিবাদ, মৌলবাদ, ধর্মীয় উগ্রতাবাদ, রহস্যবাদ ও সকল প্রতিক্রিয়াশীল শক্তির বিরুদ্ধে তার দৃঢ় অবস্থান ব্যক্ত করছে।
৫। কংগ্রেস মার্কিন-ইসরাইল-সৌদি অশুভ অক্ষের বিরুদ্ধে প্যালেষ্টাইন জনগণের ন্যায্য সংগ্রামসহ মধ্যপ্রাচ্যের সকল ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণের ন্যায়সংগত সংগ্রামের প্রতি দৃঢ় সংহতি প্রকাশ করছে।
৬। কংগ্রেস বিশ্বব্যাপী সকল বাম-প্রগতিশীল ও সাম্রাজ্যবাদের নয়া-উদারনীতিবাদের বিরুদ্ধে গড়ে ওঠা শক্তিগুলিকে সমর্থন করছে। কংগ্রেস স্পেনের নির্বাচনে বামপন্থী শক্তির বিজয় কে স্বাগত জানাচ্ছে। লাতিন আমেরিকার চিলিতে চরম দক্ষিণপন্থী সরকারের বিরুদ্ধে সা¤্রাজ্যবাদ ও নয়াউদারনীতিবাদ বিরোধী জনগণের বিক্ষোভ, সংগ্রাম ও বিজয়সহ আর্জেন্টিনা, মেক্সিকো, ভেনিজুয়েলা, বলিভিয়া, নিকারাগুয়াসহ সকল প্রগতিশীল সরকার ও জনগণের প্রতি দৃঢ় সমর্থন ও সংহতি জ্ঞাপন করছে।
৭। কংগ্রেস চীন, ভিয়েতনাম, কিউবা, উত্তর কোরিয়া ও লাওসের ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণ ও পার্টির সমাজতন্ত্র বিনির্মানের সংগ্রামকে পার্টি দৃঢ়ভাবে সমর্থন করছে।
৮। কংগ্রেস আন্তর্জাতিকক্ষেত্রে, সা¤্রাজ্যবাদ ও নয়া-উদারনীতিবাদ বিরোধী সকল লড়াই, মার্কিন সা¤্রাজ্যবাদ ও তার মিত্রদের যে কোন অনুপ্রবেশ ও হস্তক্ষেপ, বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের বিপদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম, সা¤্রাজ্যবাদ ও পুঁজিবাদ বিরোধী সকল ধরণের সংগ্রামকে সংহত করে আন্তর্জাতিক শান্তি প্রতিষ্ঠা করার কাজকে দৃঢ়তার সাথে এগিয়ে নেবার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করছে।
সংবাদ সম্মেলনের সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন পার্টির পলিটব্যুরোর অন্যতম সদস্য কমরেড নুর আহমদ বকুল, এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড দীপঙ্কর সাহা দিপু, কমরেড মোস্তফা আলমগীর রতন ও পার্টি স্কুলের সদস্য কমরেড নাসিমুল আহসান দিপু।

আগামীকাল থেকে বিকেল ৩টায় কংগ্রেসের উপলক্ষে কাকরাইলে অবস্থিত ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনে ধারাবাহিক প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হবে।

Author

ID NO : মোস্তফা আলমগীর রতন, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি

Share Button

Comment Following News

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top