ফরিদপুরের সালথা উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা যাচাই- বাছাই প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এ যাচাই-বাছাই প্রক্রিয়ার আংশ হিসেবে প্রত্যেক মুক্তিযোদ্ধাকে ইউএনও”র দপ্তরে থাকা এবং স্ব-স্ব ইউনিয়ন ও উপজেলা কমান্ড রের নিকট থেকে নিদ্ধারিত ফরম সংগ্রহ করে সকল তালিকাভুক্ত এবং যারা যে কোন কারনে মুক্তিযোদ্ধার তালিকাভুক্ত হতে পারেননি তাদেরকে ফরম পূরন করে সঠিক তথ্য প্রদান করার জন্য বলা হয়েছে। আগামী কাল ৫ই ফেব্রয়ারী পর্যন্ত সঠিক তথ্য সহ প্রয়োজনীয় প্রমানপত্র উক্ত দপ্তরে জমাদান করা যাবে বলে সূত্র জানিয়েছে।

এদিকে অন লাইনে করা যে সকল আবেদন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয় কতৃক উপজেলা নির্বাহী  অফিসারের দপ্তরে প্রেরন করা হয়েছে , নীতিমালা অনুযায়ী সেগুলোর ক্ষেত্রেই চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হবে বলে জানা গেছে। লাল ও ভারতীয় তালিকা সম্পর্কে যেসব অভিযোগ রয়েছে তা জেলা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারদের সাথে কথা বলে নিষ্পত্তি করা হবে ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারদের সাথে কথা বলে নিষ্পত্তি করা হবে।

শুনানী ইউনিয়ন অনুযায়ী করার সিদ্ধান্তও গৃহীত হয়। সে অনুযায়ী আগামী ৬ ই ফেব্রয়ারী রামকান্তপুর ও যদুনন্দী ইউনিয়ন , ৭ই ফেব্র: গট্রি ও ভাওয়াল ইউনিয়ন , ৮ ই ফেব্র: সোনাপুর ও আটঘর এবং ৯ই ফেব্র: মাঝারদিয়া ও বল্লভদী ইউনিয়নের বাছাই প্রক্রিয়া চলবে। শুনানীর সময় আবেদনকারিকে মূল প্রমান পত্রের কাগজ , ভোটার আইডি কার্ড এবং সহ যোদ্ধাদের স্বাক্ষী সাথে আনতে হবে। ভারতীয় এবং লাল মুক্তি বার্তার ক্ষেত্রে ৩ জন স্বাক্ষী সাথে আনতে হবে।

প্রতিহিংসাপরায়ন হয়ে যারা অভিযুক্ত তাদেরকে সাদা কাগজে লিখে সকল অভিযোগ তমাদি করার পক্ষে দাবী রাখেন জেলা কমান্ডার। বলা হয়েছে মৃত মুক্তিযোদ্ধাদের প্রকৃত উত্তরসূরী উত্তরাধিকার হিসেবে আবেদন করতে পারবে। কোন স্বাক্ষী মিথ্য তথ্য পরিবেশন করলে অভিযুক্তদের দু-বছরের ভাতা বন্ধকরে দেয়া হবে।

Author

ID NO : বুলবুল,ফরিদপুর

Share Button

Comment Following News

E-mail : info@dpcnews24.com / dpcnews24@gmail.com

EDITOR & CEO : KAZI FARID AHMED (Genarel Secratry - DHAKA PRESS CLUB)

Search

Back to Top