বুধবার, মে ১৯, ২০২১
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
বুধবার, মে ১৯, ২০২১
Homeদেশফুলবাড়ীর দুধিপুকুর গ্রামে মারপিটের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের

ফুলবাড়ীর দুধিপুকুর গ্রামে মারপিটের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের

মোঃ আফজাল হোসেন, দিনাজপুর প্রতিনিধি

ফুলবাড়ী উপজেলার দুধিপুকুর গ্রামে পূর্বের শত্রুতার জেরধরে টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে মারপিটের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের। ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউপির দুধিপুকুর গ্রামের মোঃ তোফাজ্জাল হোসেন এর স্ত্রী মোছাঃ আরফিনা বেগম এর ফুলবাড়ী থানায় দায়েরকৃত ইজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২১/০৪/২০২১ ইং তারিখে বুধবার সকাল সাড়ে ১২টায় আরফিনা বেগম এর স্বামী মোঃ তোফাজ্জাল হোসেন জমিতে কাজ করে বাড়ীতে ফেরার পথে রুহুল আমিনের বাড়ীর সামনে রাস্তায় উঠা মাত্র দুধিপুকুর গ্রামের মোঃ সামসুল আলম এর পুত্র মোঃ ইউসুফ আলী (৩৮), মৃত মতিয়ার রহমান (ফেলু) এর পুত্র আউয়াল (৩৭), মোঃ সামসুল আলম এর স্ত্রী মমতারা বেগম, পার্র্বতীপুর উপজেলার পলাশবাড়ী গ্রামের মোঃ সারোয়ারদ্দি পুত্র মোহাম্মদ আলী(৩৫), দলবদ্ধ হয়ে লাঠিশোটা রড় নিয়ে আরফিনা বেগম এর স্বামী মোঃ তোফাজ্জাল হোসেন কে পূর্বের সত্রুতার জের ধরে তাকে বেধম মরাপিট করে মাত্বক ভাবে আহত করেন। ঐ দিন স্থানীয় লোকজন তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ফুলবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করলে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুল রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। বর্তমান সেখানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এই ঘটনায় মোঃ তোফাজ্জাল হোসেন এর স্ত্রী মোছাঃ আরফিনা বেগম বাদী হয়ে ৫জনকে আসামী করে ফুলবাড়ী থানায় গত ২৮/০৪/২০২১ ইং তারিখে একটি মামলা দায়ের করেন। যাহার মামলা নং-১৪। ধারা-৩৪১/৩২৩/৩২৫/৩০৭/১১৪/৩৪ দ:বি:। আরফিনা বেগম জানান, মামলা দায়ের করার পর আসামীরা প্রকাশে ঘুরে বেড়াচ্ছে, তারা দায়েরকৃত মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করছে। তিনি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে ঘটনার সুষ্টতদন্ত সাপেক্ষে ন্যায় বিচারের দাবী করেছেন।
বিরামপুর উপজেলায় উৎকোচ নিয়ে গাছ চোরকে ছেড়ে দিলেন রেঞ্জার ॥
মোঃ আফজাল হোসেন, দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের চরকাই রেঞ্জের রেঞ্চ কর্মকর্তা নিশি কান্ত মালাকারের বিরুদ্ধে উৎকোচ এর বিনিময়ে গাছ চুরির সময় হাতে নাতে আটক মো. মিলন (২২) নামের এক গাছ চোরকে ছেড়ে দেবার অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। রেঞ্জ কর্মকর্তা নিশিকান্ত মালাকার ঘুষ নেবার কথা অস্বীকার জানিয়েছেন, করোনায় আদালত বন্ধ থাকায় মিলনকে ছেড়ে দিয়েছেন।
দিনাজপুরের চরকাই রেঞ্জের নবাবগঞ্জ উপজেলার ভাদুরিয়া বিটের দরগার আমবাগান এলাকার কাঠলের চড়া নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটেছে।
মিলন (২২) নবাবগঞ্জ উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের আমবাগান মহল্লার আব্দুল জলিলের ছেলে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মাহমুদপুর ইউনিয়নের সাবেক এক ইউপি চেয়ারম্যান এবং কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে ভাদুরিয়া বিটের দারগার আমবাগন এলাকার কাঠলের চড়া নামক স্থানে বনবিভাগের সমাজিক বনের আকাশমনি গাছ কেটে চুরি করছিলো মিলন ও তার এক সহযোগী । সে সময় এলাকাবাসী ধাওয়া করে মিলনকে দুটি কাটা আকাশমনি গাছসহ আটক করে। এ সময় মিলনের সহযোগী পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে সেখানে উপস্থিত হন ভাদুরিয়া বিট কর্মকর্তা নুরুল হুদা।
নুরুল হুদা সাংবাদিকদের জানান, তিনি রাতেই মিলনকে চরকাই রেঞ্চ কার্যালয়ে সোপর্দ করেন । তারপর রেঞ্জ কার্যালয় থেকে চলে আসেন।
পরের দিন মিলনকে এলাকায় দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন এলাকাবাসী। ওই ইউনিনের সাবেক এক চেয়ারম্যান ও এলাবাসী জানায়, মিলন তাদের বলেছে যে, রাতেই রেঞ্জ কর্মকর্তা নিশি কান্ত মালাকারকে উৎকোচ দিয়ে সে ছাড়া পেয়েছে।
এ বিষয়ে রেঞ্জ কর্মকর্তা নিশি কান্ত মালাকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিকদের জানান যে, করোনার কারনে আদালত বন্ধ থাকায় মিলনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

অন্যান্য সংবাদ
- Advertisment -spot_img
bn Bengali
X
%d bloggers like this: