রবিবার, মে ৯, ২০২১
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
Homeক্রাইমBJP Workers Death: গ্রামের আম গাছে ঝুলছিল বিজেপি কর্মীর দেহ, ব্যাপক ভাঙচুর...

BJP Workers Death: গ্রামের আম গাছে ঝুলছিল বিজেপি কর্মীর দেহ, ব্যাপক ভাঙচুর তৃণমূলের পার্টি অফিসে

কল্যাণপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিস (TMC Party Office) ভেঙে তছনছ করে দেওয়া হল। এ দিন সকালে ওই গ্রামে এক বিজেপি কর্মীর (BJP Supporter) মৃতদেহ উদ্ধারকে (Unnatural Death) কেন্দ্র করে উত্তেজনা দেখা দেয়। তারই জেরে তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিসে ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ। বিজেপি (BJP) আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই ভাঙচুর চালিয়েছে বলে অভিযোগ তৃণমূলের। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি। তাদের বক্তব্য, বিজেপি কর্মী খুনের ঘটনায় উত্তেজিত হয়ে গ্রামবাসীরা তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিসে ভাঙচুর চালিয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে বিজেপির কর্মী সমর্থকদের কোনও যোগ নেই।

ভোট (West Bengal Assembly Election 2021) মিটতে না মিটতেই পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনার কল্যাণপুরের কামার পাড়ার বিজেপি কর্মীর মৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। সোমবার সকালে বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে আম গাছে ওই ব্যক্তির ঝুলন্ত মৃতদেহ পাওয়া যায়। তাঁকে পিটিয়ে খুন করার পর মৃতদেহ গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ বিজেপি নেতৃত্বের। মৃতদেহ আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি।তাদের অভিযোগ, কয়েকদিন ধরেই ওই কর্মীকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছিল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। তারই বহিঃপ্রকাশ এই খুন। হুমকির ঘটনায় জড়িত তৃণমূল কর্মীদের গ্রেফতার করা না হওয়া পর্যন্ত মৃতদেহ পুলিশের হাতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দেয় বিজেপি। এরপরই তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিসে ভাঙচুর হয়। বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। এরপর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মৃতদেহ ময়না তদন্তে পাঠানো হয়েছে।

মৃতের নাম অখিল প্রামানিক। তার দাদা দেবু প্রামানিক জানিয়েছেন, অনেক রাতে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গিয়েছিল অখিল। এরপর সকালে তার ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখা গেছে বলে খবর আসে। সেখানে গিয়ে দেখি ছোট একটি  আম গাছে অখিলের মৃতদেহ ঝুলছে। পা মাটিতে ঠেকে রয়েছে। গলায় দড়ি দিয়ে এভাবে আত্মহত্যা হতে পারে না।ওকে খুন করা হয়েছে। কালনার বিজেপি প্রার্থী বিশ্বজিৎ কুণ্ডু বলেন, মৃতদেহে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়ার দাগ রয়েছে। মাটিতে রক্তের চিহ্ন রয়েছে।আমরা নিশ্চিত আমাদের এই সক্রিয় কর্মীকে খুন করার পর মৃতদেহ গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই খুন করেছে। নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত বুঝে  সেই হতাশা থেকেই তৃণমূল এই খুন করেছে।

যদিও বিজেপির এই অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছে পূর্ব বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। তৃণমূল কংগ্রেসের পূর্ব বর্ধমান জেলার সভাপতি তথা পূর্বস্থলী দক্ষিণ কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী স্বপন দেবনাথ বলেন, এটি বিজেপির একটি বড় মিথ্যাচার ছাড়া আর কিছু নয়। ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও যোগ নেই।

অন্যান্য সংবাদ
- Advertisment -spot_img
bn Bengali
X
%d bloggers like this: